Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬, ১৭ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

শহীদ কামারুজ্জামান মিলনায়তন -জেলা পরিষদকে বুঝিয়ে দিলেন মেয়র লিটন

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

সংস্কার কাজ শেষে শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান জেলা পরিষদ মিলনায়তন জেলা পরিষদের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নগর ভবনে মেয়র দপ্তরে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকারের কাছে মিলনায়তনটি বুঝিয়ে দেন মেয়র।
এ সময় মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, শহরের ভেতরের সব প্রতিষ্ঠানের সৌর্ন্দয্যবর্ধন ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের। এর অংশ হিসেবে মিলনায়তনটি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। এটি এখন ব্যবহার উপযোগী হয়েছে। এজন্য জেলা পরিষদকে বুঝিয়ে দেয়া হলো। এটি এখন নাগরিকদের অনেক কাজে লাগবে।
রাসিকের প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক মিলনায়তন সংস্কার প্রকল্পের নানা দিক তুলে ধরেন বলেন, মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন প্রথমবার দায়িত্বে থাকাকালে মিলনায়তনটি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। এ জন্য বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছিল ৩ কোটি ২৩ লাখ টাকা। এদিয়ে কাজ শুরু হয়। কিন্তু শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র এবং সাউন্ড সিস্টেমের জন্য এক কোটি টাকার অভাব দেখা দেয়। এরই মধ্যে সিটি করপোরেশনে আরেকজন মেয়র হিসেবে এলে মিলনায়তনটির সংস্কার কাজ থেমে যায়। এরপর দীর্ঘ দিন আর কাজ হয়নি। মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন দ্বিতীয় দফায় নির্বাচিত হওয়ার পর আবার কাজ শেষ করতে উদ্যোগ নেন। এরপরই মিলনায়তনটির সংস্কার কাজ শেষ হলো। প্রধান প্রকৌশলী বলেন, তিন কোটি ২৩ লাখ টাকা বরাদ্দের বাইরে ৬০০ চেয়ার বসাতে সিটি করপোরেশন আরও ৫৫ লাখ ৬২ হাজার টাকা খরচ করেছে। এই মুহুর্তে আর ২৫-৩০ লাখ টাকার কাজ করলে এটিই হবে রাজশাহীর সবচেয়ে আধুনিক মিলনায়তন। তবে গত ১ মার্চ থেকে মিলনায়তনটিতে আবার নানা অনুষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক কর্মকাÐ শুরু হয়েছে। এটি ভাড়া দিয়ে জেলা পরিষদের আয় বাড়বে।
এ সময় রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাওগাতুল আলম, প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক, সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরবৃন্দ, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ নাঈমুল হুদা রানা, প্যানেল চেয়ারম্যান-৩ নারগিস আক্তার, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান হাবিব, সহ অন্যান্য সদস্য, সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডের সদস্য উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ