Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২২ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

রোনালদোর হ্যাটট্রিকে শেষ আটে জুভেন্টাস

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০১৯, ৩:৫৬ এএম | আপডেট : ৫:৩৩ এএম, ১৩ মার্চ, ২০১৯

ইউরোপিয়ান ফুটবলে আবারও স্বরূপে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। আরো একবার পর্তুগিজ তারকা প্রমাণ করলেন কেন তাকে বলা হয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ তারকা। জুভেন্টাসও পেল ‘বুড়ো’ রোনালদোয় আস্থার প্রতিদান। তার দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকেই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মাঠে প্রথম লেগে ২-০ গোলের ব্যবধান ঘুঁচিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে উঠে গেল জুভেন্টাস।


মঙ্গলবার রাতে তুরিনের আঁলিয়েজ অ্যারোনায় সফরকারী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে ৩-০ গোলে হারায় মাস্সিমিলিয়াগো আল্লেগ্রির দল। দুই লেগ মিলে ৩-২ ব্যধানে এগিয়ে প্রতিযোগিতার কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করল টানা সাতবারের সেরি আ চ্যাম্পিয়নরা। চারবারের সাক্ষাতে এই প্রথম অ্যাটলেটিকোর বিপক্ষে গোল ও জয় পেল ‘ওল্ড লেডি’ খ্যাত দলটি।


ঘরের মাঠে শুরুর বাঁশির সঙ্গে সঙ্গে প্রতিপক্ষের রক্ষণে ঝাঁপিয়ে পড়ে জুভেন্টাস। ফল মেলে ম্যাচের ২৭তম মিনিটে। দুর্দান্ত হেডে ৩০ হাজার সাদা-কালো পতাকা নিয়ে গ্যালারিতে হাজির হওয়া স্বাগতিক সমর্থকদের আশা দেখান রোনালদো। বিরতির চার মিনিট পরে দ্বিতীয় গোল করে আশা উজ্জ্বল করেন। এবারো হেড থেকে গোল করেন পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার। আর ৮৬তম মিনিটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করে দলের অগ্রগমণ নিশ্চিত করেন ৩৪ বছর বয়সী তারকা। মৌসুমে এটি তার চতুর্থ গোল।


প্রতিযোগিতায় এটি তার অষ্টম হ্যাটট্রিক। সমান সংখ্যক হ্যাটট্রিক নিয়ে এতদিন এই রেকর্ডের একক মালিক ছিলেন লিওনেল মেসি। ১২৪ গোল নিয়ে প্রতিযোগিতার শীর্ষ গোলদাতা রোনালদো এ নিয়ে নক আউট পর্বে গোল করলেন ৬৩টি।


ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে গোলের প্রথম ভালো সুযোগ পায় জুভরা। জটলার মধ্যে বল পেয়ে পোস্টে ঠেলে দেন জর্জিও কিয়েল্লিনি। কিন্তু বলটি গোলরক্ষক ইয়ান ওবলাকের হাত থেকে রোনালদো কেড়ে নেওয়ায় রেফারি গোলের পরিবর্তে ফাউলের বাঁশি বাজান।


গোলের জন্য মরিয়া মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির শিষ্যরা বলের দখল রেখে চাপ বাড়ালেও সুবিধা করতে পারছিল না। ২৩তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে উঠে দূরপাল্লার শট নেন কোকে কিন্তু অল্পের জন্য তা লক্ষ্যভ্রষ্ঠ হয়।


২৭তম মিনিটে বাম প্রান্ত থেকে পাঠানো ফেদেরিকো বের্নার্দেস্কির ক্রসকে অনেকটা লাফিয়ে গোলে পরিণতি দেন রোনালদো।


৩১তম মিনিটে বের্নার্দেস্কির ফ্রি-কিক পোষ্টে বাতাস লাগিয়ে বেরিয়ে যায়। ৪৪তম মিনিটে স্পিনাজ্জোলার ক্রসে হেড রোনালদো লক্ষ্যে রাখতে পারেননি।


প্রধমার্ধের যোগ করা সময়ে গোলের সবচেয়ে ভালো এবং একমাত্র সুযোগ পায় সফরকারীরা। কিন্তু অ্যাটলেটিকার স্প্যানিশ স্ট্রাইকার আলভারো মোরাতার নেওয়া হেড বার ঘেঁসে বেরিয়ে যায়।


৪৯তম মিনিটে রোনালদোর হেড দুর্দান্তভাবে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ওবলাক। কিন্তু ভিএআরে নিশ্চিত হয়, তার আগেই বল গোল লাইন অতিক্রম করেছিল।


নির্ধারিত সময়ের চার মিনিট আগে ডি বক্সে বের্নার্দেস্কি কোরেরার ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাঁজান রেফারি। ভিএআরে তা নিশ্চিত হয়। তা থেকে দলকে শেষ আটে তোলার সুযোগ হাতছাড়া করেননি রোনালদো।


একই সময়ে অনুষ্ঠিত আরেক ম্যাচে শালকেকে রেকর্ড ৭-০ গোলে উড়িয়ে দুই লেগ মিলে ১০-২ ব্যবধানে এগিয়ে শেষ আট নিশ্চিত করে ম্যানচেস্টার সিটি।


এ পর্যন্ত শেষ আট নিশ্চিত করা অন্য দলগুলো হলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, আয়াক্স, পোর্তো ও টটেনহাম হটস্পার।


আগামী শুক্রবারের ড্রয়ে শেষ আটে দলগুলোর প্রতিপক্ষ নির্ধারিত হবে।


এক নজরে মঙ্গলবার রাতের ফল

ম্যান সিটি ৭-০ শালকে
(দুই লেগ মিলে ১০-২ ব্যবধানে শেষ আটে ম্যান সিটি)

জুভেন্টাস ৩-০ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ
(দুই লেগ মিলে ৩-২ ব্যবধানে এগিয়ে শেষ আটে জুভেন্টাস)



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোনালদো

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন