Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ৬ বৈশাখ ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

গাজীপুরে ৩ কোটি টাকা মূল্যের ভেজাল ঔষধ উদ্ধার, গ্রেফতার ৪

গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ মার্চ, ২০১৯, ১২:৫৩ পিএম

গাজীপুর প্রায় ৩ কোটি টাকা মূল্যের বিপুল পরিমাণ ভেজাল ঔষধ উদ্ধার করেছে গাজীপুর মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় ওই বাড়ি থেকে ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুর থানা সদরের রনজিৎ এর ছেলে সুজন (২২), একই জেলার একই থানার বনগাঁও গ্রামের মৃত মনেশ সাংম্যর ছেলে দ্বিপক রেসা (৪৯), শেরপুর জেলার শ্রীবর্দী থানার হারীয়াকোনা গ্রামের রথিন্দ্র সিরানের ছেলে রাজিউস (২২) ও পাবনা জেলার সদর থানার দিলালপুর গ্রামের মো: আবু তালেবের ছেলে সুলতান মাহমুদ (২৫)। গাজীপুর মহানগর গোয়েন্দা শাখার অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মো: মনজুর রহমান এসব তথ্য জানান।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ড. রুহুল আমিন সরকার জানান, কিছু অসাধু ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন ধরে গরু, হাঁস, মুরগী, মাছ উৎপাদনে কৃত্রিম ভিটামিন ও অন্যান্য রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করে গো-খাদ্য, বিভিন্ন প্রকার টিকা, ভেকসিন, ভিটামিন, প্রোটিন, সিপ্নোসিন, এ্যান্টিবায়োটিক তৈরী করে তা বাজারজাত করছিল। এসব ঔষধে ইউএসএ, কোরিয়া, ভারত, জাপানসহ বিভিন্ন দেশের নাম ব্যবহার করে বাজারে বিক্রি করে আসছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে প্রায় তিন কোটি টাকা মূল্যের বিভিন্ন ভেজাল ঔষধ ও ঔষধ তৈরীর বিভিন্ন উপকরণ উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, ওই চক্রটি উইলটস (ডওখঞঝ) লিমিটেড নামের একটি কোম্পানী কাগজপত্র দেখায়। তাতে দেখা গেছে কোম্পানীর ঠিকানা ঢাকা, পান্থপথ। কিন্তু মেয়াদ উত্তীর্ণ কেমিক্যাল দিয়ে তারা গাজীপুরে গরু মোটা তাজা করনের ইনজেকশন বানাচ্ছে। তারা পুরান ঢাকা হতে বিভিন্ন কেমিক্যালের বোতল এনে নকল সলিউশন তৈরী করে ৫০০ এমএল বোতল নিজেরাই প্রস্তুত করে এবং মেইড ইন কোরিয়া লিখে বাজারজাত করে। এসব ভেজাল ঔষধ ও ভিটামিন জাতীয় উপাদান তাদের নিজস্ব বোতলে বাজারজাত করার সময় কোরিয়া, ইউএসএ, ইন্ডিয়া এসব দেশের লেভেল লাগানো হয়। সিপ্রোসিন জাতীয় ইনজেকশন তারা নিজেরাই উৎপাদন ও বাজারজাত করে থাকে। তারা কোরিয়ান কোম্পানী ডো ওয়ান এর লেভেল লাগিয়ে কোরিয়ান খাবার হিসেবে সারাদেশের মৎস্য ও পোল্ট্রি খামারে বিক্রি করে আসছিল। আর এসব কেমিক্যাল অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসত বাড়িতে রাখা হয়েছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার

১৮ এপ্রিল, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ