Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

আবাসন খাতের মেঘ সরছে

চার দিনব্যাপী রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার উদ্বোধন

চট্টগ্রাম ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ১৫ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

‘স্বপ্নীল আবাসন সবুজ দেশ, লাল সবুজের বাংলাদেশ’ স্লোগানের ভিত্তিতে গতকাল বৃহস্পতিবার চার দিনব্যাপী ১২তম ‘রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার-২০১৯’ উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভ‚মিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেন, বাংলাদেশে আবাসন ব্যবসার বয়স বেশিদিনের না হলেও শুরুটা ছিলো দুর্দান্ত। কিন্তু হঠাৎ করে একটা পর্যায়ে এসে আবাসন ব্যবসা চ্যালেঞ্জর মুখে পড়ে। কঠিন চ্যালেঞ্জ পেরিয়ে আবাসন ব্যবসায় খাতের এখন মেঘ সরছে। তিনি বলেন, এ ব্যবসার একটা ভালো ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি।
আবাসন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন রিয়েল এস্টেট এন্ড হাউজিং এসোসিয়েশনের (রিহ্যাব) উদ্যোগে নগরীর হোটেল রেডিসন ব্রু বে-বিউ চিটাগাংয়ে আয়োজিত ৪ দিনব্যাপী এই ফেয়ার চলবে আগামী ১৭ মার্চ পর্যন্ত।
কম লাভে অধিক বিক্রির নীতি অনুসরণের জন্য রিহ্যাব সদস্যদের তাগিদ দিয়ে ভ‚মিমন্ত্রী বলেন, প্রত্যেক ব্যবসা-বাণিজ্য খাতে রেটিং আছে। এ খাতেও মানদণ্ড নিশ্চিত থাকা চাই। আবাসন খাতে প্রতারকদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে রিহ্যাবকে। তিনি আগামী দশ বছরে দেশে আবাসন খাতের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ভ‚মিমন্ত্রী বলেন, ২১ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। তার দুরদর্শী সিদ্ধান্তে নানা ক্ষেত্রে উন্নয়নের জোয়ার তৈরি হয়েছে। আগামীতে মানুষের আবাসনের চাহিদা আরো বাড়বে। আবাসন শুধু বাসস্থানই নয়। এটা নিরাপত্তার একটা প্রতীক। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী ২০২১ সালের মধ্যে সবার জন্য আবাসন নিশ্চিত করতে সরকারের পাশাপাশি আমরা কাজ করে যাচ্ছি। ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে আবাসন খাত গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা রাখবে।


অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে রিহ্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির চেয়ারম্যান আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী ‘সকলের জন্য বাসস্থান’ নিশ্চিত করতে রিহ্যাব সদস্যগণ অঙ্গীকারাবদ্ধ। এরজন্য চাই সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা। সরকার খাস জমি বরাদ্দ দিলে রিহ্যাব সদস্যদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে কম দামে সকলের জন্য আবাসন নিশ্চিত করা সম্ভব।
সভাপতির বক্তব্যে রিহ্যাব প্রেসিডেন্ট আলমগীর শামসুল আলামীন কাজল বলেন, বাসস্থান মানুষের মৌলিক চাহিদার অন্যতম। তিনি উল্লেখ করেন দেশে প্রায় ৩০ লাখ ফ্ল্যাটের চাহিদা রয়েছে। অথচ সরকারি এবং রিহ্যাব সদস্যদের মাধ্যমে বছরে মাত্র ১০ শতাংশ আবাসন সরবরাহ করছে, যা চাহিদা অনুযায়ী নিতান্তই কম। তাই এই সেক্টরকে এগিয়ে নেয়ার জন্য সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা প্রয়োজন।
অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন রিহ্যাব ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ফেয়ার স্ট্যান্ডিং কমিটির কো-চেয়ারম্যান কামাল মাহমুদ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন রিহ্যাবের পরিচালক ও ফেয়ার স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান শাকিল কামাল চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ দিদারুল হক চৌধুরী, মাহবুব সোবহান জালাল তানভির, রেজাউল করিম, আবদুল্লাহ আল মামুন, নাজিম উদ্দিন, মোরশেদুল হাসান, এয়াছিন চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার শেখ নিজাম উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম, সৈয়দ ইরফানুল আলম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে রিহ্যাব নেতৃবৃন্দকে নিয়ে ফিতা কেটে ‘রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার’ উদ্বোধন করেন ভ‚মিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আবাসন খাত


আরও
আরও পড়ুন