Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

শেখ জামালের অবিশ্বাস্য জয়

ইয়াসির ও এনামুলের সেঞ্চুরি, অলরাউন্ডার জিয়াউর

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

মাত্র ১০৬ রানের পুঁজি নিয়েও ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে অবিশ্বাস্য এক জয় পেয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। গতকাল জিয়াউর রহমানের অলরাউন্ডার নৈপুন্যে শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবকে মাত্র ৯৪ রানে গুটিয়ে ১২ রানের শ্বাসরুদ্ধকর জয় পায় নুরুল হাসানের দল। এ নিয়ে মৌসুমের তিন ম্যাচেই হারল শাইনপুকুর। আর টানা তৃতীয় হারের মুখ থেকে ফিরে প্রথম জয়ের দেখা পেয়ে গেল শেখ জামাল।

একই দিনে ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে ১৪ রানের দারুণ জয় পেয়েছে আবাহনী লিমিটেডও। টানা তিন জয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষেও রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। দিনের অপর ম্যাচে এনামুল হকের সেঞ্চুরিতে লিজেন্ড অব রূপগঞ্জকে ৯ উইকেটে হারায় প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। তিন ম্যাচে দুটি করে জয় প্রাইম ব্যাংক ও রূপগঞ্জের।

ফতুল্লায় ১০৭ রানের লক্ষ্যে ৪৬ রানের উদ্বোধনী জুটিতে সহজ জয়ের পথেই ছিল শাইনপুকুর। হঠাৎ করেই পথ হারায় আফিফ হোসেনের দল। জিয়াউর রহমান ও সালাউদ্দিন শাকিলের বোলিংয়ের সামনে আর কোন প্রতিরোধই গড়তে পারেনি তারা। দুই ওপেনারের পর দুই অঙ্ক স্পর্শ করতে পারেন কেবল আটে নামা সোহরাওয়ার্দি শুভ। ২৯ ওভারে শেষ হয় তাদের ইনিংস। ৯ ওভারে ১ মেডেনসহ ২১ রানে ৪ উইকেট নেন সালাউদ্দিন। ২৩ রানে ৫ উইকেট নিয়ে বোলিং কোট পূর্ণ করেন জিয়াউর।

এর আগে এই জিয়াউরের ব্যাটেই লড়াইয়ের পুঁজি পায় শেখ জামাল। সাতে নেমে এই পেস অলরাউন্ডার খেলেন ৫৮ বলে ৪১ রানের ইনিংস। শরিফুল ইসলাম, সাব্বির হোসেন ও দেলোয়ার হোসেনদের বোলিংয়ের সামনে আর কেউ পঁচিশ পার করতে পারেননি। মিডিয়াম পেসে ২৮ রানে ৪ উ্ইকেট নেন সাব্বির। গতির বলে ২০ রানে ৩ উইকেট নেন শরিফুল। ৩৫.১ ওভারে গুটিয়ে যায় জামালের ইনিংস।
মিরপুরে ২৩৭ রানের লক্ষ্যে মাশরাফি-রুবেল-সাব্বিরদের সামনে বুক চিতিয়ে লড়তে পারেন কেবল ইয়াসির আলি। দুর্দান্ত এক শতক তুলে নিয়ে অপরাজিত ছিলেন এই মিডিলঅর্ডার, কিন্তু বাকিদের কাছ থেকে তেমন কোন সহযোগিতা না পাওয়ায় ২ উইকেট হাতে নিয়েও ২২২ রানে থেমে যায় ব্রাদার্স। মাশরাফি ও সাব্বির নেন দুটি করে উইকেট। উইকেট না পেলেও ৯ ওভারে ৩ মেডেনে মাত্র ২৬ রান দেন রুবেল। ১১২ বলে ৮ চার ও ২ ছক্কায় ১০৬ রানে অপরাজিত থাকেন ইয়াসির।

এর আগে আবাহনীকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন সাইফউদ্দিন। মোসাদ্দেক ও নাজমুল হোসেন শান্তর ধীর ব্যাটিংয়ে দুইশ’ পার করাই দুষ্কর হয়ে পড়ে তাদের। এই দুজনের আউটই যেন আশির্বাদ হয়ে আসে পরবর্তিতে। দলীয় ১৭৪ রানে যখন মোসাদ্দেক ১১১ বলে ৫৪ রান করে আউট হন তখন ইনিংসে আর ৩২ বল বাকি। তাতেই সপ্তম উইকেটে মাশরাফি-সাইফউদ্দিনের অবিচ্ছিন্ন জুটি যোগ করে ৬২ রান। ৪৫ বলে ৫৯ রান করে ম্যাচসেরা হন সাইফউদ্দিন। ১৫ বলে মূল্যবান ২৬ রান আসে মাশরাফির ব্যাট থেকে। সাব্বির (১৩) এদিন ছিলেন ব্যর্থ। শান্ত ৪৪ রান করেন ৯৯ বলে। তিন ম্যাচে ব্রাদার্সের এটি দ্বিতীয় হার।

ওদিকে সাভারে টসজয়ী প্রাইম ব্যাংক বোলারদের মিলিত আক্রমণে ৪৬.১ ওভারে ১৬৩ রানে গুটিয়ে যায় শাহরিয়ার নাফিসের দল। এনামুল হক বিজয়ের দলের হয়ে পাঁচ বোলার ১০ উইকেট সমানভাবে ভাগ করে নেন। জবাবে ব্যাট হাতে একাই ম্যাচ শেষ করে দেন এনামুল। আরেক ওপেনার রুবেল মিয়ার (৪৪) উইকেটটি হারিয়ে ৩১.৩ ওভারে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় প্রাইম ব্যাংক। এনামুল অপরাজিত থাকেন ১১১ বলে ঠিক ১০০ রানে। তার ম্যাচসেরা ইনিংসে ছিল ১২টি চার ও ২টি ছক্কার মার।


শেখ জামাল-শাইনপুকুর, ফতুল্লা
শেখ জামাল : ৩৫.১ ওভারে ১০৬ (বিশত ২২, নাসির ১৩, তানবীর ১৪, জিয়া ৪১; শরিফুল ৩/২০, দেলোয়ার ২/১৪, শুভ ১/২১, সাব্বির ৪/২৮)। শাইনপুকুর : ২৯ ওভারে ৯৪ (উদয় ১৭, সাব্বির ২৬, শুভ ১৩; শহিদুল ১/৩২, শাকিল ৪/২১, জিয়া ৫/২৩)। ফল : শেখ জামাল ১২ রানে জয়ী। ম্যাচসেরা : জিয়াউর রহমান।

আবাহনী-ব্রাদার্স, মিরপুর
আবাহনী : ৫০ ওভারে ২৩৬/৬ (জহুরুল ১৪, শান্ত ৪৪, মোসাদ্দেক ৫৪, সাব্বির ১৩, সাইফ ৫৯*, মাশরাফি ২৬*; মেহেদি ২/৫৮, চিরাগ ১/২৮, নাঈম জুনিয়র ২/২৮, শরিফউল্লাহ ১/৩০)। ব্রাদার্স : ৫০ ওভারে ২২২/৮ (জুনায়েদ ১৭, চিরাগ ১৫, ইয়াসির ১০৬*, ফজলে রাব্বি ১৩, শরিফউল্লাহ ২১, শরিফ ১৭, নাঈম জুনি. ১০; মাশরাফি ২/৩৯-২, সাইফ ১/৫৪, সানজামুল ১/২৬, সাব্বির ২/২১)। ফল : আবাহনী ১৪ রানে জয়ী।
ম্যাচসেরা : মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

রূপগঞ্জ-প্রাইম ব্যাংক, সাভার
রূপগঞ্জ : ৪৬.১ ওভারে ১৬৩ (মোহাম্মদ নাঈম ৫২, নাঈম ১৫, আসিফ আহমেদ ১২, ধাওয়ান ১৩, জাকের ৪৭, আসিফ হাসান ১১; মোহর ২/১৪, আল আমিন ২/৪৮, আরিফুল ২/৩৮, রাজ্জাক ২/২৫, কাপালী ২/১২)। প্রাইম ব্যাংক : ৩১.৩ ওভারে ১৬৬/১ (এনামুল ১০০*, রুবেল ৪৪, সুদিপ ১৫*; নাবিল ১/৩৬)। ফল : প্রাইম ব্যাংক ৯ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা : এনামুল হক।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শেখ জামাল

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন