Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ০৫ চৈত্র ১৪২৫, ১১ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

পাল্টা হুঁশিয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

পাকিস্তানভিত্তিক সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদের প্রধান মাসুদ আজহারকে বৈশ্বিক সন্ত্রাসী হিসেবে তালিকাভুক্তি করার প্রস্তাবে সম্মতি না দেওয়ায় চীনের বিরুদ্ধে পাল্টা পদক্ষেপ গ্রহণের হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সংশ্লিষ্ট এক মার্কিন কূটনীতিকের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের উন্মুক্ত বিতর্ক সরাসরি স¤প্রচার করা হয়। নিরাপত্তা পরিষদের বাকি সদস্যরা সেখানে চীনকে প্রকাশ্যে তার সিদ্ধান্তের পক্ষে যুক্তি দিতে আহ্বান জানাতে পারেন, যাতে চীনের অবস্থান বিশ্বজুড়ে সমালোচিত হয়। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা নামক স্থানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় প্রাণ হারায় দেশটির আধা-সামরিক বাহিনীর অন্তত ৪০ জন সদস্য। এর দায় স্বীকার করে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ। এরপর ভারত পাকিস্তানকে যথাসম্ভব আন্তর্জাতিকভাবে বিচ্ছিন্ন করার ঘোষণা দেয়। বালাকোটে বিমান হামলার পাশাপাশি দেশটি অব্যাহত রাখে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা। তার ধারাবাহিকতায় বুধবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে উত্থাপিত হয় প্রস্তাবটি। ‘১২৬৭ আল কায়েদা স্যাংকশান কমিটির’ অধীনে আজহারকে ‘বৈশ্বিক সন্ত্রাসী’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করার জন্য সদস্যদের সম্মতি চাওয়া হয়েছিল। নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যদের সবার সমর্থন না পেলে কোনও প্রস্তাব গৃহীত হয় না। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্সের সমর্থনে উত্থাপিত প্রস্তাবটির পক্ষে ভোট দেয়নি চীন। দেশটি উল্লেখ করেছে, উত্থাপিত প্রস্তাবটি গভীর মনোযোগের সঙ্গে বিশ্লেষণের জন্য আরও সময় প্রয়োজন। চীন প্রস্তাবটির পক্ষে সমর্থন না দেওয়ার কথা জানানোর কয়েক ঘণ্টা পরে যুক্তরাষ্ট্রের সংশ্লিষ্ট একজন কূটনীতিক মন্তব্য করেছেন, বেইজিংয়ের ‘উচিত নয় পাকিস্তান বা অন্য কোনও দেশের সন্ত্রাসীদের সুরক্ষা দেওয়া,’ যদি তারা আসলেই জঙ্গিবাদের দমন চায়। চীনের বর্তমান অবস্থানের জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সংশ্লিষ্ট কূটনীতিকরা ‘বিকল্প পদক্ষেপ’ গ্রহণের কথা ভাবছেন। যুক্তরাষ্ট্রের একজন কূটনীতিক জানিয়েছেন, নিরাপত্তা পরিষদের ‘উন্মুক্ত বিতর্কে’ নিজের অবস্থানের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরতে চীনের প্রতি আহ্বান জানবেন তারা। রয়টার্স, বিবিসি।



 

Show all comments
  • Shabbir Rahman ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:২৯ এএম says : 0
    মাসুদ আজহারী একজন যুদ্ধা সে কাশ্মীরের মুসলমানদের স্বাধীন করতে নিজের জীবন দিতে ও প্রস্তুত,, একজন মুসলিম কখনই জঙী হতে পারেনা। স্যালুট বীর নেতা মাসুদ আজহারী
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Bukker ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:৩০ এএম says : 0
    জইশ-ই-মোহাম্মদ এর মাসুদ আজহার যদি সন্ত্রাসী হয় তাহলে,শিব সেনা,আরএসএস,বজরং এর মত উগ্র সাম্প্রদায়ীক দলের প্রধানরা কেন সন্ত্রাসী হবেনা..????
    Total Reply(0) Reply
  • AB Siddique ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:৩০ এএম says : 0
    বাংলার ঘরে ঘরে যখন ঈদের চাঁদ ছাড়াই আনন্দ উল্লাস হবে তখন বুঝতে হবে ....পৃথিবীর কোথাও না কোথাও ইন্ডিয়া বাঁশ খাইছে ।
    Total Reply(0) Reply
  • Obaidullah Bin Abdussabur ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    মাসুদ আজহার! আহ, নামটা শুনলেই শরীর শিরশিরে উঠে। এই মাসুদ আজহারকে অনেকেই চিনেন না। একসময় উনার ঝাঁঝালো কণ্ঠের বয়ানে পর্দার আড়ালের মহিলারা পর্যন্ত গলার চেইন খুলে দিয়ে দিতেন। মাঠের যুবকরা যুদ্ধের ময়দানে ঝাঁপিয়ে পড়তে প্রস্তুত হয়ে যেতেন। যতদূর জানি, একসময় সরকারিভাবে ওরকম ঝাঁঝালো কণ্ঠের বক্তব্য বা ওয়াজ করতে নিষেধ করা হয়। এরপর আর ঝাঁঝালো কণ্ঠের আওয়াজ শোনা হয়না বহুবছর। উনার কণ্ঠের মতই উনার সাহস। যাচ্ছেতাই নির্ভয়ে করতে পারেন। তবে উনার সাহস অন্যায়ভাবে ব্যয় করেন না। বরং অন্যায়ের বিরুদ্ধে ব্যয় করেন। মজলুমের পক্ষে ও জালিমের বিরুদ্ধে উনি সোচ্চার। খোলামেলা জায়গায় হাগু করা, গরুর মুত পান করা খবিশ-রাবিশদের কথায় কীইবা আসে যায়!!
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Miraj ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    এইজন্য চিন বাদা দিছে, মাসুদ আজহার কোন সন্ত্রাসী না,সন্ত্রাসী হল ঐ কুলাঙ্গার ভারত, যারা কিনা সারাক্ষণ বাংলাদেশ সীমান্ত মানুষ হত্যা করে
    Total Reply(0) Reply
  • Sadia Kathun ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    ভারতের RSS ও বিজেপিকে জঙ্গি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসাবে কালো তালিকা ভুক্ত করার জন্য পাকিস্তান চীনের প্রস্তাব আনা উচিত। একজন স্বাধীনতা কামীকে সন্ত্রাসী জঙ্গি বললে মোদি ও হিন্দু সংগঠন RSS কেন বাদ যাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Rahman Sadman ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:৩৩ এএম says : 0
    আমার প্রশ্ন অন্য জায়গায়-- ভারত পাকিস্তান ভাগ হওয়ার পর হতে এই পর্যন্ত ভারত সরকার কাশ্মীরিদের উপর নিপিড়ন নির্যাতন আর মানবধীকার লংগন করে বাকস্বাধীনতা কেড়ে নিয়ে খুন গুমের মাধ্যমে টিকে আছে তার জন্য জাতিসংঘ কি পদক্ষেপ নিয়েছে-- সেটাই জানতে চাই।
    Total Reply(0) Reply
  • অমাবশ্যা কাটবেই ১৬ মার্চ, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
    মাসুদ আজহার ভারতীয় হিন্দু সেনাবাহিনীর দ্বারা নিরীহ কাশ্মীরি মুসলমানদের হত্যা,নির্যাতন ও মুসলমানদের অধিকার রক্ষার প্রতিরোধযোদ্ধা।তাকে কেন চীন সন্ত্রাসী বলবে?কারণটা কি?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন