Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

শিবগঞ্জে ২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ মার্চ, ২০১৯, ৪:৩১ পিএম

আসন্ন তৃতীয় ধাপে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী (আ.লীগ বিদ্রোহী) মহসীন আলীর মিয়ার উপর আবারো হামলা ও ব্যবহৃত মাইক্রোবাস ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন। শনিবার দুপুরে শিবগঞ্জ আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করে বলেন, শুক্রবার রাতে শিবগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বদরুল ইসলামের সঙ্গে কথা বলতে যান তিনি। এ সময় অতর্কিতভাবে তার ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে তিনি রক্ষা পেলেও তার ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটি ভাঙচুর করা হয়। এর আগেও ৪ মার্চ হামলার শিকার হয়েছিলেন তিনি। হামলার জন্য তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী সৈয়দ নজরুল ইসলামের সমর্থকদের দায়ী করেছেন। তিনি অভিযোগ করেছেন- আওয়ামী লীগ প্রার্থী সৈয়দ নজরুল ইসলাম কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নূরুল ইসলামের ভাই। কুমিল্লার এসপি সৈয়দ নূরুল ইসলাম ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের এসপি টিএম মোজাহিদুল ইসলামের ইন্ধনেই পরিকল্পিতভাবে এসব হামলার ঘটনা ঘটছে। এছাড়া হামলার বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনকে লিখিতভাবে অভিযোগ দিলেও কোন প্রতিকার মিলছেনা। সংবাদ সম্মেলন চলাকালে উজিরপুর বেড়ি বাঁধ এলাকায় মহসীন মিয়ার আনারস প্রতিকের একটি প্রচার গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ তুলে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। মহসীন আলী মিয়া সুষ্ঠভাবে ভোট গ্রহণের জন্য সেনাবাহিনী মোতায়নের দাবি জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিবগঞ্জ পৌর মেয়র কারিবুল হক রাজিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শামসুর রহমান বাবু, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি সফিকুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মেসবাউল হক বাবুসহ কর্মী সমর্থকরা। অপরদিকে মহসীন আলী মিয়ার সংবাদ সম্মেলনের কিছুক্ষণ পরেই পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ অস্বীকার করেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী সৈয়দ নজরুল ইসলামের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি। নির্বাচন পরিচালনা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আতিকুল ইসলাম টুটুল খাঁন বলেন, সুষ্ঠু পরিবেশ বিনষ্ট করতেই মহসীন মিয়ার সমর্থকরা হামলার নাটক সাজাচ্ছেন। তিনি বলেন, নৌকার বিজয় নিশ্চিত জেনে মহসীন আলী মিয়া ভোটারদের বিভ্রান্তি করার চেষ্টা করছে। এ সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা পরিষদ নির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ