Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২২ মে ২০১৯, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৬ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

গোলযোগ ছাড়াই দিনাজপুরে ১২ উপজেলায় ২য় ধাপের নির্বাচন চলছে, ঘোড়াঘাটে ২ আওয়ামী নেতা আটক

দিনাজপুর অফিস | প্রকাশের সময় : ১৮ মার্চ, ২০১৯, ১:৪৪ পিএম

আজ সোমবার উপজেলা নির্বাচনের ২য় ধাপে দিনাজপুরের ১৩ উপজেলার মধ্যে ১২ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ভোটার শুন্য নির্বাচনে দুপুর ১ টা পর্যন্ত কোথাও কোন গোলযোগের খবর পাওয়া যায়নি। তবে ঘোড়াঘাট উপজেলায় দুই আওয়ামী নেতাকে আটক করার খবর পাওয়া গেছে। এই উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছে।
জেলার ১৩ উপজেলার মধ্যে ৪ উপজেলায় আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হয়ে গেছে। এসব উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে সদর উপজেলার একজন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মৃত্যুবরন করায় এই উপজেলায় আগামী ৩১ মার্চ নির্বাচনের পুনঃ তফসিল ঘোষনা করা হয়েছে। আজ অনুষ্ঠিত হওয়া ১২ উপজেলায় নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি অনেক কম। বীরগঞ্জ সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে মোট ভোটারের সংখ্যা হচ্ছে ১৯৯০। বেলা ১১ টা পর্যন্ত ভোট পড়ে মাত্র ১’শ টি। কাহারোল বাজার ফাজিল মাদ্রাসার পুরুষ কেন্দ্রে বেলা পৌনে ১টায় দেখা গেল ভোটার শুন্য বুথ। প্রিজাইডিং অফিসারের দাবী ৩০ শতাংশ ভোট পড়েছে। তবে এই কেন্দ্রের মহিলাদের লাইন দেখা গেছে।
বীরগঞ্জ ও কাহারোলে মুলত লড়াই হচ্ছে আওয়ামী লীগ এমপি সমর্থিতদের সাথে স্বতন্ত্র হিসাবে প্রতিদ্বন্ধিতাকারী স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের। বীরগঞ্জে ইতিমধ্যে আওয়ামী প্রার্থী’র অভিযোগের প্রেক্ষিতে বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ ৩ পুলিশকে নির্বাচনী দায়িত্ব থেকে বিরত করা হয়েছে।
এদিকে ভোটারদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনে ভোট কেন্দ্রে এসেও ভোট না দেয়ার অভিজ্ঞতার পাশাপাশি কেন্দ্রে না গেলেও ভোট হয়ে যাওয়ার আক্ষেপে ভোটাররা এবার ভোট কেন্দ্র বিমুখ হয়ে পড়েছে। স্মরনাতীতকালের উপস্থিতি কম হওয়ার বিষয়টি নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকলেই স্বীকার করেছেন। অপরদিকে ভোট সুষ্ঠভাবে গ্রহনের জন্য জেলায় ১১ হাজার ২০৩ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ভোট কেন্দ্রে ও টহল ডিউটিতে দায়িত্ব পালন করছেন। বাহিনীর সদস্যদের মধ্যে আনসার সদস্য সবচেয়ে বেশি থাকবে। প্রত্যেকটি ভোট কেন্দ্রে ১০ জন করে আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করবে। এর মধ্যে ৬ জন পুরুষ ও ৪ জন মহিলা রয়েছে। আনসারদের মধ্যে অস্ত্রধারী এবং ৮ জন লাঠিধারী থাকবে। তালিকাভুক্ত কেন্দ্রগুলোর মধ্যে সাধারণ কেন্দ্রে ১ জন অস্ত্রধারী পুলিশ সদস্য এবং গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ২ জন অস্ত্রধারী পুলিশ সদস্য থাকবে। এছাড়া টহল ডিউটিতে বিজিবির ১২৩০ সদস্য, র‌্যাব ১১২ সদস্য, সেনা বাহিনীর প্রায় ২০০ সদস্য, পুলিশের ১ হাজার ৭৫১ জন সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচনের দিন তাৎক্ষনিক যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ঝটিকা অভিযানের জন্য প্রস্তুত রাখা হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা পরিষদ নির্বাচন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ