Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২ বৈশাখ ১৪২৬, ১৮ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

শ্রীপুরে ১৩ চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার : গ্রেফতার ৩

শ্রীপুর (গাজীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

গাজীপুরের শ্রীপুর থানা পুলিশ গত ছয় দিন অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন স্থান থেকে ১৩ টি চোরাইকৃত মোটরসাইকেল উদ্ধারসহ ৩ চোরকে গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলো-কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ থানার টামনী কোনাপাড়া গ্রামের মৃত আঃ মালেকের ছেলে কাজল মিয়া (২৯), গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া থানার বেলাশী গ্রামের মাইনুদ্দিনের ছেলে আবুসাইদ (২০) ও আমরাইদ গ্রামের রফিকের ছেলে মোঃ শাহীন (২২)।
মামলার তদন্ত কারী কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার এস আই আহসানুজ্জামান জানান, গত ২২ ফেব্রুয়ারী শ্রীপুর থানায় মোটার সাইকেল চুরির মামলার পর থেকে চোরচক্রকে গ্রেফতারের অভিযান শুরু করেন। অভিযানে ওই তিন চোরকে ধরতে সক্ষম হন। পরে তাদের দেওয়া তথ্যমতে গত ৬ দিনের টানা অভিযানে শ্রীপুর ও কাপাসিয়া থানা এলাকার বিভিন্ন স্থান থেকে বিভিন্ন মডেলের ১৩টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করেন।
শ্রীপুর থানার ওসি জাবেদুল ইসলাম জানান, উদ্ধার হওয়া মোটরসাইকেল গুলোর পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে। বাকী চোরদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত আছে।

প্রতিহিংসার আগুনে পুড়ল পশু
গাজীপুরের শ্রীপুরে প্রতিপক্ষের প্রতিহিংসার কারণে এক কৃষক পরিবারের দুটি গবাদী পশুকে আগুনে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রোববার রাতে উপজেলার তালতলী গ্রামের মৃত মনিরুজ্জামানের ছেলে ছাইদুল ইসলামের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ছাইদুল ইসলাম গতকাল সোমবার দুপুরে বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগে জানা যায়, তালতলী গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে সবুজ, মহর আলীর ছেলে নুরুল ইসলাম ও রুসমত আলীর ছেলে শফিকুলের সাথে কয়েক বছর ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। গত কিছুদিন আগেও পূর্ব বিরোধের জের ধরে তার ২৮টি হাঁস বিষপ্রয়োগ করে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। এছাড়াও তার গবাধি পশুর খাবারের জন্য স্তুপ করে রাখা খড়েও আগুন দিয়েছে। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় সে শ্রীপুর থানায় একাধিক অভিযোগ করেন।
কৃষক সাইদুল ইসলাম জানান, গভীর রাতে প্রতিপক্ষের লোকজন তার গোয়ালঘরে আগুন লাগিয়ে গবাদী পশুসহ ঘর পুড়িয়ে দেয়।
এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। শ্রীপুর থানার ওসি জাবেদুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে খোঁজ নেয়া হচ্ছে, পশুর প্রতি নির্মমতার তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন