Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ডাচ শহরে বন্দুক হামলায় নিহত ৩

আরো হতাহতের আশঙ্কা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে পৃথক দু’টি মসজিদে খ্রিস্টান বন্দুকধারীর করা হামলায় ৫০জন মুসল্লি নিহতের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ইউরোপের আরেক শান্তিপূর্ণ দেশ নেদারল্যান্ডসের ইউট্রেখ শহরের একটি ট্রামে বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে গতকাল সোমবার রাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত তিনজন। এতে আরো অন্তত ৯ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে খবর পাওয়া গেছে। প্রশাসনের দেওয়া তথ্যের বরাতে করা প্রতিবেদনে এই হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম দ্য এক্সপ্রেস।
প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল সোমবার স্থানীয় সময় ১০টা ৪৫ মিনিটে বন্দুকধারীরা শহরের কেন্দ্রস্থলের বাইরে অক্টোবর ২১ স্কয়ারের পাশের জংশনে একটি ট্রামে হামলা চালায়। ইউট্রেখ পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সিটি সেন্টারের পাশে অবস্থিত শহরের একটি স্টেশনের কাছে ট্রামে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। হামলার পরপরই ঘটনাস্থলে দেশটির জরুরি সার্ভিস ও অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। ওই এলাকায় ট্রাম চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। পুলিশের জরুরি সেবা বিভাগের সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানটি ঘিরে ফেলেন। তাছাড়া ঘটনাস্থলে পর্যাপ্ত সংখ্যক অ্যাম্বুলেন্সের পাশাপাশি এয়ার অ্যাম্বুলেন্সেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাই সেই স্থানটি ত্যাগ করে চলাচলের জন্য সর্বসাধারণের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।
দেশটির প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে বলেছেন, তিনি গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। হামলার পর সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা সঙ্কটকালীন জরুরি বৈঠকে বসেছেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ডাচ রেডিও বলছে, হেগে সরকারের বিভিন্ন দফতরে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।
ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান বলছে, হামলার স্থানে তিনটি হেলিকপ্টার মোতায়েন করেছে নেদারল্যান্ডস সরকার। শহরের পুলিশের মুখপাত্র জুস্ট ল্যানশ্যাগে বলেছেন, ‘এ দিন সকালে একটি ট্রামে কয়েকজন দুর্বৃত্ত এসে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছুঁঁড়ে। আর এতেই এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।’ পুলিশের এ মুখপাত্র আরও বলছেন, ‘আমি সেখানে একজন নারীকে পড়ে থাকতে দেখেছি। তাছাড়া আরও বেশ কয়েকজনকে সেখান দিয়ে দৌড়ে পালাতেও দেখেছি। তারা আসলে হামলাকারী নাকি সাধারণ যাত্রী তা এখনো নিশ্চিত হয়ে বলতে পারছি না।’
দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী ইউট্রেখ ইউনিভার্সিটি মেডিকেল সেন্টারকে আহতদের জরুরি সেবা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে। এক প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় নিউজ আউটলেট এনইউডটএনএলকে বলেন, ‘একজন বন্দুকধারী আচমকা এলোপাতাড়ি গুলি শুরু করে।’ তবে এডিডটএনএল নামের আরেকটি সংবাদমাধ্যমে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, চারজন বন্দুকধারী ট্রাম স্টেশনের পাশে এক নারীর ওপর অতর্কিতে বন্দুক হামলা শুরু করে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিউজিল্যান্ড


আরও
আরও পড়ুন