Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা চাইবে দুদক

জাহালমকে নিয়ে সিনেমা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

সোনালী ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির ২৬ মামলার ভুল আসামি পাটকল শ্রমিক জাহালমের জীবনের গল্প নিয়ে সিনেমা তৈরির ওপর নিষেধাজ্ঞা চাইতে যাচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল সোমবার দুদক প্রধান কৌঁসুলি খুরশীদ আলম খান সাংবাদিকদের বলেন, সংশ্লিষ্ট আদালতের অনুমতি নিয়ে আজ (মঙ্গলবার) হলফনামা আকারে দাখিল করা হবে। তিনি আরো বলেন, যেহেতু বিষয়টি এখনো বিচারাধীন। এ কারণে এ বিষয়ে সিনেমা তৈরির ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে আমরা আবেদন করবো।
এর আগে জাহালমকান্ডে দুদকের ভূমিকায় উষ্মা প্রকাশ করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আদালত বলেছিলেন বিনা অপরাধে জাহালমের কারাবাসের দায় দুদকের এড়ানোর সুযোগ নেই। এরপর দুদক চেয়ারম্যান জাহালম কান্ডে দুঃখ প্রকাশ। গত ১৩ মার্চ দুইটি জাতীয় দৈনিক জাহালমের জীবনের কষ্টের কাহিনি নিয়ে সিনেমা নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে।
সোনালী ব্যাংকের সাড়ে ১৮ কোটি টাকা ঋণ জালিয়াতির ঘটনায় পাটকল শ্রমিক জাহালমকে আবু সালেক হিসেবে চিহ্নিত করে ২৬টি মামলা করে দুদক। পরে ২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি জাহালমকে গ্রেফতার করা হয়। অন্যের অপরাধে তিন বছর ধরে জেল থাকা জাহালমকে নিয়ে একটি টেলিভিশন চ্যানেল ও দৈনিক পত্রিকার প্রতিবেদন সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী হাইকোর্টের নজরে আনলে গত ৩ ফেব্রুয়ারি আদালত তাকে মুক্তির নির্দেশ দেন। জাহালমের জীবনের এই গল্প নিয়েই চলচ্চিত্র নির্মাণের সিদ্ধান্তের কথা বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন মারিয়া তুষার নামের একজন নির্মাতা। জানা গেছে, এরই মধ্যে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে নাম নিবন্ধন করেছেন এই পরিচালক। সিনেমার নামও রেখেছেন জাহালম।
খুরশীদ আলম খান বলেন, সম্প্রতি দুটি সংবাদপত্রের খবরে এসেছে জাহালমের জীবনের গল্প নিয়ে সিনেমা বানাতে যাচ্ছেন কোনো এক পরিচালক। এখানে দুদকের আপত্তি হচ্ছে, জাহালমের ঘটনাটি এখনও বিচারাধীন। ফলে সাবজুডিস কোনো বিষয় নিযে সিনেমা হতে পারে না। তাই পত্রিকায় প্রকাশিত দুটি প্রতিবেদন যুক্ত করে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করতে যাচ্ছি।
এদিকে এই ঘটনায় দুদকের করা সব মামলার প্রাথমিক তথ্য বিবরণী, অভিযোগপত্রসহ যাবতীয় নথি চেয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ১০ এপ্রিল তা আদালতে নিয়ে আসতে হবে দুদককে। আসামি না হয়েও দুদক মামলায় পাটকলকর্মী জাহালমের তিন বছর কারাবাসের ঘটনায় গত ৫ মার্চ দুদক হলফনামা আকারে ব্যাখ্যা দাখিল করে। পরদিন তার ওপর শুনানির পর বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ পরে এ আদেশ দেন। টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধুবুড়িয়া গ্রামের জাহালম নরসিংদীর একটি পাটকলে কাজ করতেন। স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে থাকতেন সেখানে। ২০১৬ সালে দুদকের এক মামলার আসামি আবু সালেক হিসেবে গ্রেফতার করা হয় জাহালমকে। জাহালমের ভাষ্য, তখন তিনি বারবার বলছিলেন যে তিনি সালেক নন, কিন্তু তাতে কান দেননি দুদক কর্মকর্তারা। #



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুদক

২৭ মার্চ, ২০১৯
২৪ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন