Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

নিরপেক্ষ নির্বাচনে যারা বাধা দেয় তারা বঙ্গবন্ধুকে অমান্য করে

আলোচনা সভায় ড.কামাল হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, নির্ভেজাল গণতন্ত্র ও নির্বাচন নিয়ে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনা যারা অমান্য করে তাদেরকে ‘একঘরা’ করা উচিত। গতকাল বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী মিলনায়তনে গণফোরামের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রহমানের ৯৯তম জন্মদিন উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়।
ড. কামাল বলেন, অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন এটা সকলেরই দাবি। এ নিয়ে কোনো বির্তক নাই এখন। তাবে এটা হচ্ছে কি, হচ্ছে না ? পাড়ায় মহল্লায় দেখেন যে, কারা এটা হতে দিচ্ছে না ? আমি মনে করি, যারা হতে দিচ্ছে না বঙ্গবন্ধুর প্রতি তাদের আনুগত্য নেই। তারা উনার (বঙ্গবন্ধু) কথাকে অমান্য করাচ্ছে। এদেরকে চিহ্নিত করে আমরা সবাই মিলে তাদেরকে একঘরে করা দরকার।
গণফোরাম সভাপতি বলেন, এরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে অমান্য করছে। বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্নের বাংলাদেশ সেটাকে বাস্তবায়িত করার পথে বাধার সৃষ্টি করছে। দেশকে বাচাও, রুখে দাড়াও এদের বিরুদ্ধে। আমি মনে করি এই কাজটা ইতিবাচক কাজ। নেতিবাচক কিছু করতে বলছি না। ইতিবাচকভাবে ঐক্যের কথা বলছি। আজকের দিনে আমরা ১৬ কোটি মানুষের ঐক্য চাই। বিশেষ করে যারা ঐক্য থেকে ভয় পায় তারা বলছে দেশের মানুষ বিভক্ত। আমি বলব চারিদিকে তাকিয়ে দেখেন। আমি বলব ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে একটা বৃহত্তর ঐক্য বিরাজ করছে।
তিনি বলেন, গণতন্ত্র রক্ষা করার ব্যাপারে কম জীবন দেয়া হয়নি তো, একাত্তরের আগে দেয়া হয়েছে, একাত্তরে দেয়া হয়েছে, পঁচাত্তরের পরেও দেয়া হয়েছে। মানুষ তো কম মূল্য দেয়নি, দিয়ে যাচ্ছে। আমার কথা হলো এতো মূল্য দেয়ার পরেও এটা কেনো আমরা ভোগ করতে পারছি না। নির্ভেজাল গণতন্ত্র, মৌলিক অধিকার, আইনের শাসন-এসবকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য জনগন অনেক মূল্য দিয়েছে। বঙ্গবন্ধুও জীবন দিয়েছেন। আমরা যদি বঙ্গবন্ধুকে সত্যিকারভাবে শ্রদ্ধা জানাতে চাই, আমরা সবাই আজকে শপথ নেবো-উনি যেসব কাজের দায়িত্ব আমাদের দিয়ে গেছেন, সেই দায়িত্ব পালন করার জন্য আমরা নিজের দায়িত্বকে উসর্গ করব। সত্যিকার অর্থে আমরা যেন ১৬ আনার গণতন্ত্র ভোগ করতে পারি।
‘জাতীয় পার্টির নেতা গণফোরামে যোগদান’
জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সার্ক আইননজীবী ফোরামের সেক্রেটারি জেনারেল সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী মহসিন রশিদ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের এই অনুষ্ঠানে ড. কামাল হোসেনের হাতে ফুল তুলে দিয়ে গণফোরামের যোগ দেন। ড. কামালও তাকে ফুল দিয়ে বরণ করেন।
গণফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশতাক আহমেদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি মফিজুল ইসলাম খান কামাল, সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবু সাঈয়িদ, রেজা কিবরিয়া, মোকাব্বির খান, আমসা আমিন, জগলুল হায়দার আফ্রিক, সিরাজুল হক, কেন্দ্রীয় নেত্রী বাবলী আখতার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ