Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

নেদারল্যান্ডসে ট্রামে হামলাকারী পরিচয় প্রকাশ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৯, ৬:৩৭ পিএম

নেদারল্যান্ডসের ইউট্রেখ শহরে সোমবার ট্রামে গুলি চালিয়ে তিন ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে তুরস্কে জন্মে নেয়া ৩৭ বছর বয়সি গোকমেন তানিসসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে৷ পুলিশ এখন গুলির ঘটনার কারণ জানার চেষ্টা করছে৷ সোমবার সকালে ঐ ঘটনার প্রায় সাত ঘণ্টা পর পুলিশ তানিসকে আটক করে৷ এরপর আরো দুজনকে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে আটক করা হয়েছে৷
হামলার পর স্থানীয় কর্তৃপক্ষ তানিসের ছবি প্রকাশ করে তার কাছে যাওয়ার চেষ্টা না করতে শহরের বাসিন্দাদের পরামর্শ দিয়েছিল৷ এছাড়া মসজিদ ও স্কুলও বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল৷ তুরস্কের গণমাধ্যম বলছে, দেশটির ইয়োজগাত শহরে তার জন্ম৷ সেখানে বসবাসরত তানিসের আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে তুরস্কের সরকারি বার্তা সংস্থা আনাদলু জানিয়েছে, ‘পারিবারিক বিবাদ'-এর কারণে এই হামলা হয়ে থাকতে পারে৷
নেদারল্যান্ডসের গণমাধ্যমেও ইউট্রেখে তানিসের প্রতিবেশীদের বক্তব্য প্রকাশিত হয়েছে৷ হামলার কারণ ‘সম্পর্ক'-এর বিরোধের হতে পারে বলে মনে করছেন তারা৷ উটরেখটের প্রধান কৌঁসুলি রুটগার ইয়ুকেন এক সংবাদ সম্মেলনে পারিবারিক বিষয়টিও হামলার কারণ হতে পারে বলে মন্তব্য করেন৷
এদিকে, স্থানীয় পুলিশের কমিশনার রব ফান ব্রি গতরাতে এক টকশো-তে বলেছেন, তানিসের হামলায় নিহতদের সঙ্গে তার পরিচয়ের কোনো যোগসূত্র এখনো পাওয়া যায়নি৷
নেদারল্যান্ডসের তদন্তকারীরা হামলাটি সন্ত্রাসী কার্যক্রম কিনা, তা খতিয়ে দেখছেন৷ দেশটির প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে এই কারণ ছাড়াও পারিবারিক বিবাদও একটি কারণ হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন৷
ডিএইচএস নামে তুরস্কের এক বার্তা সংস্থা তানিসের বাবা মেহমেত তানিসের বক্তব্য প্রকাশ করেছে৷ তিনি বলেছেন, তার ছেলে যদি অপরাধ করে থাকে, তাহলে তিনি তার শাস্তি চান৷ তবে ২০০৮ সালে স্ত্রী-র সঙ্গে বিচ্ছেদ হলে মেহমেত তানিস তুরস্কে ফিরে যাওয়ার পর ছেলের সঙ্গে আর কোনো যোগাযোগ ছিল না বলেও জানান তিনি৷
নেদারল্যান্ডসের পুলিশ জানিয়েছে, তানিসকে তারা চিনত৷ আর এনওএস নামে দেশটির একটি প্রচারমাধ্যম জানিয়েছে, একটি ধর্ষণ মামলায় দুই সপ্তাহ আগেও আদালতে হাজির হয়েছিলেন তানিস৷ সূত্র: এএফপি, এপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ