Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১১ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ফসলি জমি জবর দখল করে মাটি বিক্রি !

ময়মনসিংহ ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০১৯, ৭:০৩ পিএম

ময়মনসিংহে সদর উপজেলার সুহিলা কাটাখালপাড় গ্রামে আদালতের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ফসলি জমি জবর দখল করে যন্ত্র দিয়ে মাটি খুড়ে বিক্রি করছেন স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। এনিয়ে প্রশাসনে অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছে না নিরীহ ভূক্তভোগী পরিবার। 

ভুক্তভোগী ছফির উদ্দিন জানান, পূর্ববিরোধের জের ধরে স্থানীয় সন্ত্রাসী হুমায়ুনের নেতৃত্বে একদল স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী আমাদের সাড়ে ১০ কাঠা খারিজ ফসলি ভূমি জবর দখল করে যন্ত্র দিয়ে মাটি খুড়ে বিক্রি করছে। বাধাঁ দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। ঘটনাটি নিয়ে থানা পুলিশে লিখিত অভিযোগ করা হলেও কোন প্রতিকার মিলছে না।
অপর ভূক্তভোগী আ: মোতালেব জানান, ওই ভূমিটিতে বিজ্ঞ আদালত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারী করেছেন। কিন্তু সন্ত্রাসী হুমায়ুন আদালতের আদেশ অমান্য করে যন্ত্র দিয়ে গর্ত খুড়ে মাটি বিক্রি করছে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ভাবে অসংখ্য বার শালিস হলেও বিচার মানছেন না হুমায়ুন। বর্তমানে পরিবার নিয়ে আমরা সন্ত্রাসী হুমকির মুখে আতংকে দিনযাপন করছি।
সদর উপজেলার ১১ নং ঘাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাজাহান সরকার সাজু জানান, মালিকানা বিরোধের জের ধরে অনেক বার শালিস হয়েছে। কিন্তু আপোষ হয়নি। বর্তমানে হুমায়ুন ওই জমি থেকে মাটি কেটে বিক্রি করছে। তবে প্রকৃত মালিক কে ? তা বলতে পারছি না।
তবে অভিযোগ বিষয়ে হুমায়ুন বলেন, আমি আমার জমি থেকেই মাটি কেটে বিক্রি করছি। তাদের অভিযোগ মিথ্যা।
এবিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মাহমুদুল হাসান বলেন, ফসলি জমি নষ্ট করা আইনে অপরাধ। এ ধরনের কোন ঘটনা জানা নেই। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়ে এসিল্যান্ড ভালো বলতে পারবেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিষেধাজ্ঞা অমান্য


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ