Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

ডাকসুতে ভোট দিতে বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার অভিযোগ নেই

ঢাবি প্রভোস্ট কমিটির দাবি

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ভোটের দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণ,ধৈর্যশীল আচরণ এবং সুশৃঙ্খল পরিবেশ বজায় রাখাসহ তারা গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে তার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের প্রভোস্টদের সমন্বয়ে গঠিত প্রভোস্ট কমিটি। পাশাপাশি কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, উপস্থিত ভোটারদের কেউ ভোট দিতে পারেনি বা কারোর ভোট অন্য কেউ দিয়েছে বা কেউ ভোট দিতে বাধাপ্রাপ্ত বা হেনস্তার শিকার হয়েছে - এমন কোনো অভিযোগ তারা পাননি। গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রভোস্ট কমিটির এক সভা ১৮ মার্চ সোমবার ভিসি বাসভবনস্থ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রো-ভিসি (প্রশাসন) প্রফেসর ড. মুহাম্মদ সামাদ এবং বিভিন্ন হলের প্রভোস্টগণ উপস্থিত ছিলেন।
বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, দীর্ঘ ২৮ বছর পর গত ১১ই মার্চ ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুুভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ায় প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির সভায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। একই সাথে নির্বাচনের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়। সভায় বিস্তারিত আলোচনা শেষে নিম্নলিখিত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়-সে্বচ্ছাসেবী পর্যবেক্ষক দল নামে বিশ্ববিদ্যালয়ে কয়েকজন শিক্ষক অননুমোদিতভাবে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে গিয়ে যেভাবে সামাজিক যোগাযোগ ও প্রচারমাধ্যমে নির্বাচন সম্পর্কে অসত্য তথ্য ও বিভ্রান্তি ছড়িয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছেন তা উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও নিন্দনীয়। তাদেরকে দায়িত্বশীল আচরণের প্রতি যত্মশীল থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রভোস্টবৃন্দ ভিসির নিকট জোর দাবী জানান।
সভায় প্রভোস্টবৃন্দ দৃঢ় চিত্তে অভিমত ব্যক্ত করেন যে, সকল হলে ডাকসু ও হল সংসদ নিবাচন সার্বিকভাবে সুষ্ঠু ও গণতান্ত্রিক রীতিনীতিতে অনুষ্ঠিত হয়। তাছাড়া, যে দু’একটি বিচ্ছিন্ন অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটেছিল সেসব কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে নিরসন করে। অনেক প্রার্থী এবং ভোটার-শিক্ষার্থীবৃন্দ নির্বাচন চলাকালে এবংনির্বাচন-উত্তরসময়ে সততা, আন্তরিকতা ও স¦চ্ছতার সাথে দীর্ঘ প্রায় তিন দশক পর ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের এক বিরাট কর্মযজ্ঞ আয়োজনের জন্য সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং প্রাধ্যক্ষ, আবাসিক শিক্ষক ও সংযুক্ত শিক্ষকবৃন্দসহ দায়িত্বরত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মর্মে প্রাভাস্টবৃন্দ আনন্দের সাথে সভাকে অবহিত করেন। সভায় অভিমত ব্যক্ত হয় যে, এক গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবে কতিপয় বিচ্ছিন্ন ঘটনাকে কেন্দ্র কওে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসকে অশান্ত ও অস্থিতিশীল করার হীন অপপ্রয়াসে কোনো কোনো মহল লিপ্ত হয়েছিল। দীর্ঘ প্রায় তিন দশক পর অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনকে কেন্দ্র কওে অসত্য উস্কানিমূলক তথ্য পরিবেশন ও বিভ্রান্তিমূলক প্রচারণা থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকল মহলকে আহ্বান জানানো হয়। সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, এ মাসের ২৩ তারিখ শনিবার সকাল ১১টায় নবনির্বাচিত ডাকসু ও একই সাথে সংশ্লিষ্ট হল সংসদ কার্যকর পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় ডাকসু ও হল সংসদের নবনির্বাচিত কার্যকরী পরিষদের সদস্যদের পরিচিতি ও শুভেচ্ছা বিনিময় এবং দায়িত্বভার গ্রহণসহ পরবর্তী কার্যক্রম বিষয়ে আলোচিত হবে।
প্রফেসর শিবলী রুবাইয়াতকে ডাকসুর কোষাধ্যক্ষ মনোনয়ন
গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো অন্য একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ব্যাংকিং এন্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের প্রফেসর শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামকে ডাকসু-২০১৯ এর কোষাধ্যক্ষ হিসেবে মনোনয়ন প্রদান করা হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ (ডাকসু) এর গঠনতন্ত্রের ৬(১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামান তাকে এই মনোনয়ন প্রদান করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ডাকসু

২৩ মার্চ, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ