Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

আফগান রূপকথা চলছেই এক লাফে ৮৮ ধাপ!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

দেহরাদুন টেস্টে দুই ইনিংসেই দারুণ দুটি ফিফটি করেছেন। দল পেয়েছে ঐতিহাসিক এক জয়। রহমত শাহর মাঠের পারফরম্যান্সের প্রতিফলন এবার র‌্যাঙ্কিংয়েও। আইসিসি টেস্ট ব্যাটসম্যানদের এই তালিকায় এক লাফে ৮৮ ধাপ এগিয়েছেন।
আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে দুই ইনিংসে ৯৮ ও ৭৬ রান করেছেন রহমত। নিজেদের মাত্র দ্বিতীয় টেস্টেই প্রথম জয়ের স্বাদ পেয়েছে আফগানিস্তান। গতপরশু আফগানদের ৭ উইকেটের জয়ে রহমত হয়েছেন ম্যাচসেরা। আর গতকাল প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে এই দীর্ঘ লাফ দিয়ে রহমত আছেন ৮৯তম স্থানে। আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সবার ওপরে আছেন ২৫ বছর বয়সি এই ব্যাটসম্যান। অধিনায়ক আসগর আফগান আছেন ১০৬তম স্থানে। এক ইনিংস ব্যাটিং পেয়ে ৬৭ রান করে তিনি এগিয়েছেন ২৪ ধাপ। তিন ধাপ এগিয়ে ১১০তম স্থানে আছেন আরেক আফগান ব্যাটসম্যান হাসমতউল্লাহ শহিদি।

আয়ারল্যান্ডের কেভিন ও’ব্রায়েন চার ধাপ এগিয়ে ৬৮তম স্থানে আছেন। ফাস্ট বোলার টিম মুরতাগও এগিয়েছেন ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে। এগারো নম্বরে নেমে অপরাজিত ৫৪ ও ২৭ রান করা মুরতাগ ৫৯ ধাপ এগিয়ে ১৪০তম স্থানে আছেন। অভিষিক্ত অ্যান্ডি বালবির্নি দ্বিতীয় ইনিংসে করেন ৮২ রান, ৭৩ ধাপ এগিয়ে তিনি ১৪৫তম স্থানে আছেন।
বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে বড় লাফ দিয়েছেন আফগানিস্তানের ফাস্ট বোলার ইয়ামিন আহমদজাই ও লেগ স্পিনার রশিদ খান। ৬ উইকেট নিয়ে ৪৫ ধাপ এগিয়ে ৫০তম স্থানে আছেন ইয়ামিন। ৫০ ধাপ এগিয়ে ৬৭তম স্থানে আছেন রশিদ। আফগানিস্তানের প্রথম বোলার হিসেবে পাঁচ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়া রশিদ ম্যাচে নেন ৭ উইকেট।

ব্যাটসম্যান, বোলার ও অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে আছেন যথাক্রমে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি, অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলার প্যাট কামিন্স ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।


প্রথা পাল্টে টেস্ট জার্সিতেও নাম, নাম্বার!
স্পোর্টস রিপোর্টার : টেস্ট ক্রিকেটে ১৪২ বছরের ইতিহাসে যা কখনো দেখা যায়নি, আগামী আগস্ট থেকে তা দেখা যেতে পারে। খেলোয়াড়দের সাদা জার্সির পেছনে থাকবে নাম ও নম্বর। এমন পরিবর্তনের প্রস্তাব আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ থেকেই আনার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এ পরিবর্তন আনার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এ বছর অ্যাশেজ সিরিজে খেলোয়াড়দের নাম ও নম্বরসংবলিত জার্সি তৈরির কাজে হাত দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অপারেশনস বিভাগ, জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম।

১৮৭৭ সালে টেস্ট ক্রিকেট শুরুর পর থেকে খেলোয়াড়দের জার্সিতে তাঁদের নাম ও জার্সি নম্বর কখনো দেখা যায়নি। টেস্ট ক্রিকেটকে আরও জনপ্রিয় করতে স¤প্রতি বেশ কিছু প্রস্তাব দিয়েছে খেলাটির আইনপ্রণেতা মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)। এর মধ্যে রয়েছে ফ্রি হিট, এক ব্র্যান্ডের (যেমন কুকাবুরা বা ডিউক বা এসজি) বল দিয়ে সব ম্যাচ খেলা, সময় নষ্ট না করতে টাইমার চালুর মতো কিছু প্রস্তাব। জার্সি নম্বর ও খেলোয়াড়দের নাম জুড়ে দেওয়ার কথাও এর সঙ্গে ভাবা হয়েছে। মাঠে খেলোয়াড়দের আরও সহজে চিনতেই এই প্রস্তাবনা।

আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে অ্যাশেজ সিরিজ। এবারের এই অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে খেলোয়াড়দের গায়ে প্রথমবারের মতো দেখা যেতে পারে তাঁদের নাম ও নম্বরসংবলিত জার্সি- আর এর মধ্য দিয়ে ভেঙে ফেলা হতে পারে টেস্ট ক্রিকেটের এত দিনের রীতি। জার্সিতে নাম ও নম্বর জুড়ে দেওয়ার প্রস্তাবটি ১ আগস্ট থেকে চালু করার প্রস্তাব করেছে আইসিসি। অ্যাশেজ সিরিজ এবারই প্রথমবারের মতো বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অধীনে মাঠে গড়াবে। টেস্ট খেলুড়ে নয়টি দল দুই বছর মেয়াদে পয়েন্টের ভিত্তিতে একে অপরের সঙ্গে খেলবে, এরপর অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল।

জার্সিতে নাম ও নম্বরের নিয়মটি ১ আগস্ট থেকে চালু হলে এই নিয়মের অধীনে মাঠে নামা প্রথম দুটি দল হবে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। এর আগে ২০০১ সালে টেস্টের টুপিতে নম্বর জুড়ে দেওয়ার প্রথা চালু করে ইংল্যান্ড। এরপর বাকি দেশগুলো তা অনুসরণ করে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন