Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

সুপার ওভারে প্রোটিয়াদের জয়

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০১৯, ২:৫৩ এএম | আপডেট : ৩:৪০ এএম, ২০ মার্চ, ২০১৯

জয়ের জন্য ২৪ বলে দরকার ১৮ রান, হাতে ৭ উইকেট। ক্রিজে তখন ভয়ঙ্কর রূপ নেওয়া ডেভিড মিলার ও ফন ডার ডুসেন। অপেক্ষা ছিল সহজ জয়-পরাজয়ে ম্যাচ পরিসমাপ্তির। কিন্তু হঠাৎই দৃশ্যপটে এসে দক্ষিণ আফ্রিকাকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গা। রোমাঞ্চ ছড়িয়ে ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। যেখানে শেষ হাসি হাসে প্রোটিয়ারা।

মঙ্গলবার কেপটাউনের নিউল্যান্ডসে ৩ ম্যাচ সিরিজের ১ম টি-টোয়েন্টি টাই হয়। নির্ধারিত ২০ ওভারে লঙ্কানদের করা ৭ উইকেটে ১৩৪ রানের জবাবে ৮ উইকেটে প্রোটিয়াদের ইনিংসও আটকে যায় ১৩৪ রানে।

সুপার ওভারে মালিঙ্গার ওভারে ১৪ রান তোলেন মিলার ও ফন ডার ডুসেন। জবাবে ইমরান তাহিরের ওভারে ৫ রান নিতে পারেন আভিস্কা ফার্নান্ডো ও থিসারা পেরেরা, এর মধ্যে দুটি ছিল ওয়াইড।

এর আগে মিলার-ডুসেনের ব্যাটে সহজ জয়ের পথেই ছিল প্রোটিয়ারা। দশম ওভারে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে অধিনায়ক ডু প্লেসিস ফেরার পর চতুর্থ উইকেটে ৬৬ রানের জুটিতে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেন মিলার ও ডুসেন। প্রথমে পরিস্থিতির চাহিদা মেটানোর পর চড়াও হতে থাকেন ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মত উইকেটের পিছনে দাঁড়ানো ‘কিলার মিলার’। ছক্কা হাঁকিয়ে সঙ্গীর সঙ্গে সুর মেলান সিঙ্গেল নিয়ে খেলতে থাকা ডুসেনও।

সপ্তদশ ওভারে বোলিংয়ে ফিরে চ্যালেঞ্চ ছুড়ে দেন মালিঙ্গা। ৩০ বলে ৩৪ রান করে ডুসেন ফিরেন উদানার হাতে ক্যাচ দিয়ে। সেই ওভারেই রান আউট হন ২৩ বলে ৪১ রান করা মিলার।

এরপরও ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ দক্ষিণ আফ্রিকার হাতেই ছিল। ১২ বলে করতে হতো ৬, হাতে তখনও ৪ উইকেট। ক্রিজে ছিলেন জেপি ডুমিনি। মালিঙ্গা দেন মাত্র ১ রান, ডুমিনি ফিরেন রান আউট হয়ে।

উদানার করা শেষ ওভারে ৫ রান নিতে পারেননি ডেল স্টেইন ও ইমরান তাহির। শেষ বলে দরকার ছিল ২ রান। পড়িমরি করে ১ রান নিয়ে ম্যাচ টাই করে তারা। খুব কাছ থেকেও রান আউটের সুযোগ হাতছাড়া করেন উইকেটরক্ষক নিরোশান ডিকভেলা।

৪ ওভারে ১১ রানে ২ উইকেট নেন মালিঙ্গা।

শ্রীলঙ্কার ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২৯ বলে ৪১ রান কামিন্দু মেন্ডিসের, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯ পেরেরার। ইনিংসে তিনটি ক্রিশোর্ধো জুটির কোনটিই বড় হয়নি। সর্বোচ্চ ৩৭ রান আসে পেরেরা-ডি সিলভার পঞ্চম উইকেট জুটিতে।

স্বাগতিক সব বোলারই পান উইকেটের দেখা। ২৫ রানে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন ফেলুকওয়ায়ো।

সংক্ষপ্তি স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ২০ ওভারে ১৩৪/৭ (ডিকভেলা ০, ফার্নান্ডো ১৬, মেন্ডিস ০, কামিন্দু ৪১, অ্যাঞ্জেলো ১৬, থিসারা ১৯, ডি সিলভা ১৪, উদানা ১২*, দনাঞ্জয়া ৮*; স্টেইন ১/২৫, রাবাদা ১/৪২, সিপামলা ১/১৯, তাহির ১/২১, ফেলুকয়ায়ো ৩/২৫)
 
দক্ষিণ আফ্রিকা: ২০ ওভারে ১৩৪/৮ (ডি কক ১৩, হেনড্রিকস ৮, দু প্লেসি ২১, ফন ডার ডাসেন ৩৪, মিলার ৪১, দুমিনি ৯, ফেলুকওয়ায়ো ৪, রাবাদা ০, স্টেইন ১*, তাহির ১*; মালিঙ্গা ২/১১, ডি সিলভা ১/২৮, দনাঞ্জয়া ১/২৮, ভ্যান্ডারসে ১/২৫, মেন্ডিস ০/৯, উদানা ০/৩২)
 
ফল:  টাই, সুপার ওভারে ৯ রানে জয়ী দক্ষিণ আফ্রিকা
 
ম্যান অব দা ম্যাচ: ডেভিড মিলার



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন