Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ৬ বৈশাখ ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

ব্রাদার্সের সহজ জয়

মিজানুর ও সাইফের সেঞ্চুরি, ফরহাদ রেজার ৫ উইকেট

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৩ এএম


ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের চতুর্থ রাউন্ডের ম্যাচে জয় পেয়েছে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব, খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন। ২১২ রানের পুঁজি নিয়েও বিকেএসপিকে ২৭ রানে হারিয়ে আসরের প্রথম জয় তুলে নেয় খেলাঘর। সাইফ হাসানের শতকে ভর করে গাজী গ্রæপ ক্রিকেটার্সের বিপক্ষে ৬ উইকেটের জয়ে পয়েন্ট তালিকার তিনে উঠে এসেছে প্রাইম দোলেশ্বর। বুধবারের আরেক ম্যাচে মিজানুর রহমানের সেঞ্চুরিতে উত্তরা স্পোর্টিং ক্লাবকে ৮ উইকেটে হারিয়ে আসরের দ্বিতীয় জয় পায় ব্রাদার্স।

দল সহজ জয় পেলেও আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে জুনায়েদ সিদ্দিকীকে। সাভারে উত্তরা স্পোর্টিংয়ের ছুড়ে দেওয়া ২৬৫ রানের লক্ষ্যে মিজানুর রহমানকে নিয়ে ১৬১ রানের দুর্দান্ত উদ্বোধনী জুটি উপহার দেন জুনায়েদ। ৩০তম ওভারে ১১৩ বলে ১০ চার ও ৫ ছক্কায় ১০৮ রান করে আউট হন মিজানুর। অথচ ৪৭তম ওভার পর্যন্ত ক্রিজে থেকেও ৮ রানের জন্য তিন াঙ্কের দেখা পাননি জুনায়দে। তবে অভিজ্ঞ ব্যাটিংয়ে ১১২ বলে ৫ চারে ৯২ রান করে দলের বড় জয় নিশ্চিত করেন জাতীয় দলের সাবেক এই ওপেনার। ওয়ান ডাউনে নামা ফজল মাহমুদ রাব্বিও অপরাজিত ফিফটির দেখা পাওয়ায় ১০ বল হাতে রেখে বড় জয় নিশ্চিত করে ব্রাদার্স। ব্রাদার্সের এই জয়ে উচ্ছ¡াস প্রকাশ করেন ক্লাব কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মেহেদী হাসান। তার বিশ্বাস, তার দল সাফল্য বজায় রেখে টুর্নামেন্টের শীর্ষে উঠে আসবে।

তানজিদ হাসান ও আনিসুল ইসলাম ইমনের ২২ ওভারে ১০২ রানের উদ্বোধনী জুটিতে উত্তরার শুরুটাও ছিল দারুণ। দুজনেই পার ফিফটির দেখা কিন্তু হাতে উইকেট হাকা সত্তে¡ও শেষদিকে সেভাবে রান তুলতে পারেনি তারা। অধিনায়ক মোহাইমিনুল ছিলেন কিছুটা ব্যতিক্রম। ৫১ বলে তিনি করেন ৬৪ রান।

মিরপুরে দোলেশ্বরের জয়ে নেতৃত্ব দেন দলপতি ফরহাদ রেজা। তার বোলিং তোপে ৫ বল হাতে রেখে ২৩০ রানে গুটিয়ে যায় গাজী গ্রæপ। গাজীর ইনিংসে ব্যক্তিগত একমাত্র ফিফটি পারভেজ রসুলের, ৬৩ বলে ৬৭। সামসুর রহমানকে নিয়ে পঞ্চম উইকেটে ১০৪ রান যোগ করে টপঅর্ডার ধসের ধাক্কা সামাল দেন পারভেজ। ১৬৭ রানে ৮ উইকেট হারানো গাজী লেজের দৃড়তায় দুইশ পার করতে সক্ষম হয়। ৪০ রানে ৫ উইকেট নেন ফরহাদ রেজা। ৩২ রানে ৩ উইকেট নেন সৈকত আলি।

জবাবে সাইফের শতকে ২৫ বল হাতে রেখেই লক্ষ্যে ফেঁছে যায় দোলেশ্বর। দলীয় ১৮৯ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে ১২৪ বলে ৪টি বাউন্ডারি ও ৬টি ওভার বাউন্ডারিতে ১০২ রান করেন সাইফ। লিস্ট এ ক্রিকেটে ২০ বছর বয়সীর তৃতীয় শতক এটি। ১০ বলে ২১ রানের ইনিংসে দুটি বিশাল ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচের ইতি টেনে দিয়ে আসেন ম্যাচসেরা নির্বাচিত হওয়া ফরহাদ রেজা।

ফতুল্লায় অনুষ্ঠেয় দিনের বাকি ম্যাচে খেলাঘরের জয়ের নায়ক রবিউল ইসলাম রবি। বিকেএসপির বিপক্ষে ধীর উইকেটে ওপেন করতে নেমে ১১৭ বলে ৭৫ রানের ইনিংসের পর বল হাতে রবি তুলে নেন মূল্যবান ২ উইকেট। প্রথমে ব্যাট করা খেলাঘর ৮ উইকেটে করে ২১২ রান। দ্বিতীয় উইকেটে ১২০ রানের জুটির পথে ৮৭ বলে ৪৯ রান করেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন। বিকেএসপির হাসান মুরাদ নেন ৩৩ রানে ৩ উইকেট।

লক্ষ্যটা ছোট হলেও জয়ের রাস্তা তৈরী করতে পারেনি বিকেএসপি। ব্যাটসম্যানদের প্রচেষ্টা ছিল উইকেটে পড়ে থাকার। ৩ উইকেটে ৪০ রান করতে গিয়ে পেরিয়ে যায় ১৫ ওভার। শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেট হারিয়ে তাদের ইনিংস আটকে যায় ১৮৫ রানে। সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ৮৮ বলে ৫৬ শামিম হোসেনের। আর কোন ব্যক্তিগত ইনিংস পঁচিশ পেরোয়নি। রবি ছাড়াও খেলাঘরের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন রবিউল, ইরফান ও মাসুম।
একদিনের বিরতি শেষে আগামীকাল থেকে শুরু হবে প্রতিযোগিতার পঞ্চম রাউন্ডের খেলা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
উত্তরা স্পোর্টিং-ব্রাদার্স, সাভার
উত্তরা : ৫০ ওভারে ২৬৪/৮ (তানজিদ ৭৫, আনিসুল ৫৮, জনি ২৩, মোহাইমিনুল ৬৪, রাজা ১৯; শরীফ ১/৪৫, জানি ২/৫৭, শরিফউল্লাহ ২/৪৪)। ব্রাদার্স : ৪৮.২ ওভারে ২৬৭/২ (মিজানুর ১০৮, জুনায়েদ ৯২, মাহমুদ ৫৭*; রশিদ ১/৪৫, রাজা ১/৩২)।
ফল : ব্রাদার্স ৮ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচসেরা : মিজানুর রহমান।

খেলাঘর-বিকেএসপি, ফতুল্লা
খেলাঘর : ৫০ ওভারে ২১২/৮ (রবি ৭৫, মাহিদুল ৪৯, অমিত ২৩, ইফতেখার ১৭, রবিউল ১৯*; আবু নাসের ১/৪৪, শামিম ২/৩১, মুরাদ ৩/৩৩, সুমন ১/৩৮, ইকবাল ১/৩৭)। বিকেএসপি : ৫০ ওভারে ১৮৫/৯ (রাতুল ১৯, শামিম ৫৬, আকবর ১৫, কাইয়ুম ২২, পারভেজ ২০, সুমন ২৪*; রবিউল ২/৪১, রবি ২/২৮, ইফরান ২/৩৬, তানভীর ১/৩৩, মাসুম ২/৩০)। ফল : খেলাঘর ২৭ রানে জয়ী। ম্যাচসেরা : রবিউল ইসলাম রবি।

গাজী গ্রæপ-দোলেশ্বর, মিরপুর
গাজী গ্রæপ : ৪৯.১ ওভারে ২৩০ (মাইশুকুর ১২, রনি ১৭, ইমরুল ১৪, শামসুর ৪৫, রসুল ৬৭, আবু হায়দার ২৯, নাসুম ১৯, রাব্বি ১১*; রেজা ৫/৪০, সানি ২/৫১, সৈকত ৩/৩২)। প্রাইম দোলেশ্বর : ৪৫.৫ ওভারে ২৩১/৪ (সাইফ ১০২, ফরহাদ ১৯, মার্শাল ৩২, নাসিম ৩৫*, রেজা ২১*; রাব্বি ২/৩৯, মেহেদি ১/৪৮, রসুল ১/৪৩)।
ফল : প্রাইম দোলেশ্বর ৬ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচসেরা : ফরহাদ রেজা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন