Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

এমপি তুহিন-মাদানীর বিরুদ্ধে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ প্রার্থীদের

ময়মনসিংহ ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০১৯, ৫:৪১ পিএম

ময়মনসিংহে দুই জন সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধির ১৪ এবং ২২ ধারা লঙ্গনের অভিযোগ করেছেন প্রার্থীরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়মনসিংহে পৃথক পৃথক ভাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন প্রার্থীরা।
তবে আচরণ বিধি বিধি লঙ্ঘনের সুনির্দিষ্ট প্রমাণ দিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশন, সচিব ও সংশ্লিষ্ট রির্টানিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করলেও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না বলে সংবাদ সম্মেলন দাবি করেন নান্দাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আ: মালেক চৌধুরী এবং ত্রিশালের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল মতিন সরকার।
আ: মালেক চৌধুরী স্বপনের অভিযোগ, তফসিল ঘোষনার পর থেকে ময়মনসিংহ-৯ নান্দাইল আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন বিদ্রোহী প্রার্থী জুয়েলের আনারস প্রতিকে প্রকাশ্যে সভা-সমাবেশ করে ভোট চাইছেন। অথচ ১৪ এবং ২২ ধারা মতে সংসদ সদস্যগণ সভা-সমাবেশ করে ভোট প্রার্থনা করলে আচরণ বিধির ৩২ ধারা অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে গন্য হবে। কিন্তু সুনির্দিষ্ট প্রমাণসহ অভিযোগ হলেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ফলে সাংসদ তুহিন প্রভাব বিস্তারের মাধ্যমে নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ বিনষ্ট করে পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে সংঘাতময় পরিস্থিতির সৃষ্টি করছেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক ভূইয়া, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক শহীদুল্লাহ।
তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন বলেন, এ অভিযোগ মিথ্যা। আমি নির্বাচনি মাঠে নাই। আমি এখন আমার বাড়ি ঘুমাচ্ছি। আমি কি আমার বাড়ীতে ঘুমাতেও পারব না’ বলে প্রশ্ন রাখেন তিনি।
অপরদিকে ময়মনসিংহ-৭ ত্রিশাল আসনের সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল মতিন সরকার। তিনি বলেন, বিধি লঙ্গন করে উপজেলা নির্বাচনে এ আসনের সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী তফসিল ঘোষনার পর থেকেই নৌকার পক্ষে প্রকাশ্যে সভা-সমাবেশে ভোট চাইচ্ছেন। গত ১৯ মার্চ তাঁর আচরন বিধি লঙ্ঘনের সুনির্দিষ্ট প্রমাণ দিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট মহলকে লিখিত ভাবে জানিয়েছি। কিন্তু সংশ্লিষ্টরা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। মতির সরকার দাবি করেন, সাংসদ রুহুল আমিন মাদানী সভা-সমাবেশে উপস্থিত হয়ে শুধু ভোট প্রার্থনাই করছেন না, বরং তা ফলাও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করছেন।
এ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক নবী নেওয়াজ সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ন-আহবায়ক ফজলে রাব্বি, শোভা মিয়া আকন্দ প্রমূখ।
তবে অভিযোগ বিষয়ে বক্তব্য জানতে সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানীর মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

৩১ মার্চ, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ