Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

‘নির্বাচনে ফেল করার অধিকার দেন’

বিজিএমইএ’র নির্বাচন নিয়ে ‘স্বাধীনতা পরিষদ’

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০১৯, ৮:২৮ পিএম

নির্বাচনের নাম নেওয়ার পর থেকেই অনেক বাধার সম্মুখীন হয়েছি। সভাপতি হতে চাই না। পরিচালকরা যাকে নির্বাচিত করবে সেই সভাপতি হবে। তবে নির্বাচনে ফেল করার অধিকার দেন। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) ঢাকা ক্লাবে ‘তৈরি পোশাক শিল্পের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ’ বিষয়ে মত বিনিময় সভায় এ কথা বলেন ‘স্বাধীনতা পরিষদ’ আহ্বায়ক ও ডেনিম প্রসেসিং প্ল্যান্টের মালিক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

এ সময় বিজিএমইএ পরিচালনা পরিষদ (২০১৯-২১) নির্বাচনের ১২ অঙ্গিকার দিয়ে ইশতেহার ঘোষণা করে প্যানেলটি।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, অনেক বাধা সত্ত্বেও প্রায় পাঁচ বছর পর বিজিএমইএতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সদস্যরা অন্তত এবার ভোট দিতে পারবেন। ভোটাররা যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দিক। পছন্দ মত নেতাকে নির্বাচন করুক। জয় পরাজয় বিষয় না। তারপরও ভোট হোক।

স্বাধীনতা পরিষদের আহ্বায়ক বলেন, নির্বাচন করতে এসে অনেক বাধার সম্মুখীন হয়েছি। সভাপতি হতে চাই না। আমরা পরিচালকর নির্বাচন করছি। পরিচালকরা যাকে নির্বাচিত করবে সেই সভাপতি হবে। এ সময় প্রতিদ্বন্দী প্যানেলের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নির্বাচন করে ফেল করার অধিকার দেন।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, অনেকেই মনে করেন গার্মেন্টস মালিকরা ভালো আছেন। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে দেশের অধিকাংশ গার্মেন্ট মালিকের বাড়ি-গাড়ি ব্যাংকে মরগেজ রাখা আছে। তারা শ্রমিকদের বেতন দিতে পারে না। তিনি বলেন, সব সমস্যার সমাধান করে দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে শ্রমিক-মালিক ভাই ভাই সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করা হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা নির্বাচনে এসে একটি প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচন হচ্ছে এতেই প্রত্যাশা পূরণ হয়ে গেছে। নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠ হবে এ ব্যাপারে আমি আশাবাদী।

নির্বাচিত হলে প্রথম কাজ হবে পোশাক শিল্পের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করা উল্লেখ করে স্বাধীনতা পরিষদের আহ্বায়ক বলেন, এ জন্য পোশাক শিল্পের ভাবমূর্তি দেশ ও বিদেশে সঠিকভাবে তুলে ধরা ই হবে আমাদের প্রথম অঙ্গীকার। এদিকে নির্বাচনে স্বাধীনতা পরিষদের মূল প্রতিদ্বন্দী সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম। তারা জোটবদ্ধভাবে নির্বাচন করছে। সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরামের নেতৃত্বে রয়েছেন মোহাম্মদী গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবানা হক। নির্বাচনে যৌথ প্যানেল জয়লাভ করলে ফোরামের লিডার হিসেবে বিজিএমইএ’র প্রথম নারী সভাপতি হবেন রুবানা হক। তিনি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মরহুম মেয়র আনিসুল হকের স্ত্রী।

বিজিএমইএ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় পাঁচ বছর পর বিজিএমএমইএর পরিচালনা পরিষদের নির্বাচন আগামী ৬ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে। দুই বছর মেয়াদি পরিষদের ৩৫টি পরিচালক পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে ৯টি পদে সরাসরি নির্বাচিত হওয়ায় এবার ২৬টি পরিচালক পদে নির্বাচন হবে। আর নির্বাচিত পরিচালকরা বিজিএমইএর সভাপতি নির্বাচন করবেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিজিএমইএ

১৭ এপ্রিল, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন