Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২ বৈশাখ ১৪২৬, ১৮ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

প্রকাশ্যে ধূমপান নয়

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ২৩ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

ধূমপানের পক্ষে কোনো ভালো যুক্তি দাঁড় করানো সম্ভব নয়। ধূমপান স্বাস্থ্যর জন্য ক্ষতিকর। এটাই সত্য। তারপরও জেনেশুনে ধূমপানে আসক্ত মানুষ আমাদের সমাজ, রাষ্ট্র ও ঘরেই বিরাজমান। আপনপর বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ধূমপান করে থাকে। তাদের ধূমপানের ক্ষতির প্রভাব পড়ে সমাজ, রাষ্ট্র ও ঘরে। জনসমক্ষে ধূমপান নিষিদ্ধ। বাংলাদেশের আইনে আর্থিক জরিমানার বিধানও আছে। ধূমপানকারীর ধোঁয়া তার আপনজনের ওপরও ক্ষতির প্রভাব ফেলে। ধূমপান যদি ধূমপায়ীর অধিকার হয়ে থাকে, ধূমপায়ীর ধোঁয়ামুক্ত থাকাও তো অধূমপায়ীর অধিকার। ধূমপান শুধু স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকরই নয়, একটি বিরক্তিকর অবস্থাও তৈরি করে। একবারও কি ভেবেছেন, পেছনের চলমান অধূমপায়ী পথচারীরা কতটা বিরক্তিবোধ করছেন! ভদ্রলোককে নিয়ে তাদের মাঝে নিশ্চয়ই বাজে ধারণা তৈরি হয়েছে। ঠিক গণপরিবহনেও এই বিরক্তিকর অবস্থা নিত্য। অসংখ্য যাত্রী, গিজগিজ করছে পুরো যানবাহন। এই অবস্থায় দু-একজন যদি সিগারেট জ্বালিয়ে বসেন, ভদ্রলোকদের আচরণে নিশ্চয়ই এই কাজটা শোভা পায় না। শ্রমজীবী মানুষ না হয় কঠিন বাস্তবতায় থাকায় এ ধরনের সচেতনতাটা দেখাতে পারে না। কিন্তু শিক্ষিত সমাজে দায়িত্বশীলদের কাছে যখন ধূমপান ফ্যাশন, তাদের অনুসরণ করে স্কুল-কলেজে পড়ুয়া উঠতি কিশোররা তখন ফ্যাশন ভেবে ধূমপান চর্চায় আগ্রহী হয়ে ওঠে। এটা সমাজের ভবিষ্যৎ অন্ধকারকেই নির্দেশ করে।
মির্জা আবু হেনা কায়সার টিপু
উত্তরা, ঢাকা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

১৭ এপ্রিল, ২০১৯
১৬ এপ্রিল, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন