Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

উদ্বোধনের অপেক্ষায় কাপ্তাইয়ের সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প

জাতীয় গ্রেডে যোগ হতে যাচ্ছে ৫.৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

কাপ্তাই (রাঙামাটি) থেকে কবির হোসেন | প্রকাশের সময় : ২৩ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

কাপ্তাইয়ের সৌর শক্তি সাহায্যে প্রায় ৭.৪ মেগাওয়াট বিদুৎ উৎপাদন প্রক্রিয়ার নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে। আগামী মাসে যে কোন দিন সৌর প্রকল্পটি উৎপাদনে যেতে পারবে বলে জানিয়েছেন প্রকল্পের নীতিনির্ধারকগণ। পিডিপির চিফ ইঞ্জিনিয়ার প্রকৌশলী মো. আব্দুর রহমান জানান, কাপ্তাই প্রজেক্টেও ভেতর কর্ণফুলী পানি বিদুৎ কেন্দ্রের প্রধান বাঁধ সংলগ্ন খালী জায়গায় সৌর বিদুৎ প্রকল্পটি ২০১৭ সালের ৯ জুলাই প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হয়। পুরো প্রকল্প এলাকা সুউচ্চ সীমানা প্রাচীর দিয়ে ঘেরাও করা হয়েছে। রাখা হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনি। ইতোমধ্যে প্রকল্পের সিংহভাগ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, ৭ দশমিক ৪ মেগাওয়েট সৌর শক্তি পাওয়ার নির্মাণের লক্ষে ইপিসি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এবং প্রকল্পের নাম দেয়া হয় ‘কাপ্তাই ৭.৪ মেগাওয়াট সোলার ফটোভোলটিক গরিড কানেকটেড পাওয়ার জেনারেশন পাল্টন কাপ্তাই’। চীনের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান জেটটিক করর্পোরেশন পাওয়ার প্লানটি নির্মাণ করেছে। এর প্রকল্পের নির্মাণ ব্যায় ধরা হয়েছে ১০৯ কোটি ৫৫ লাখ ৩৯ হাজার টাকা। এরমধ্যে ৮৪ কোটি ৫৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা দিয়েছে এশিয়ান ব্যাংক (এডিবি)। এ প্রকল্পের সরকারি (জিওবি) অর্থায়ন হচ্ছে ১৭ কোটি ৫৫ লাখ ২৮ হাজার টাকা। অবশিষ্ট ৭ কোটি ৪৪ লাখ ২১ হাজার টাকা অর্থায়ন করছে পিডিবি। এ প্রকল্পের প্রতি কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যায় ধরা হয়েছে ৫ টাকা ৪৮ পয়সা। প্রকল্পের প্রজেক্ট ডাইরেক্টও (পিডি) মো. ফারুক জানান, প্রায় ১১০কোটি টাকা ব্যায়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হয়েছে। পুরো অর্থের জোগান দিচেছ এডিবি। এপ্রিল মাসে যে কোন দিন সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্পটি আনুষ্ঠিনভাবে উদ্বোধন করা হতে পাবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। সৌর শক্তির সাহায্যে এই প্রকল্প থেকে দৈনিক ৭.৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। এর মধ্যে ২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কাপ্তাই প্রজেক্টে ব্যায় করা হবে। বাকি ৫.৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সঞ্চালন করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন