Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

গতির কাছে জীবনের পরাজয় সড়ক ঝরেছে ১০ প্রাণ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

রাজধানীসহ সারাদেশে সড়কে দুর্ঘটনা রোধে আন্দোলনের রেশ কাটতে না কাটতেই দ্রæতগতির বাস ও থ্রী-হুইলারের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ নিহত ৭ জন নিহত হয়। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সের ড্রাইভারসহ নিহত হয় আরো ৪ জন এবং আহত হয় ১০ জন । আহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে । আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন :
বরিশাল ব্যুরো জানান , বরিশাল-বানরীপাড়া-নেছারাবাদ সড়কের তেতুলতলা এলাকায় যাত্রীবাহী বাসের সাথে একটি থ্রী-হুইলারের মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক সহ ৭ জন নিহত ও ৫ জন গুরুতর আহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে দুজন মহিলা। দূর্ঘটনায় থ্রী-হুইলার মাহেন্দ্র’টি দুমড়ে মুচড়ে গেছে। নিহতদের মধ্যে ৫ জন ঘটনাস্থলেই ও অপর দুজন হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। আহত ৫ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থা বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে বরিশাল মহানগরী থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে বরিশাল-বানরীপাড়া সড়কের যাত্রী বোঝাই বাসটি নগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের দিকে আসছিল। অপরদিকে গড়িয়ারপাড় হয়ে থ্রী-হুইলারে ১০ জন যাত্রী নিয়ে চালক সোহেল বানরীপাড়ার দিকে যাচ্ছিল। তেতুলতলায় এসে দ্রুতগতি সম্পন্ন দুটি যানবাহনে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় । এতে থ্রী-হুইলারের চালক সোহেল ছাড়াও যাত্রী খোকন, মানিক, শিলা হালদার ও পারভিন সহ অপর এক অজ্ঞাত ব্যক্তি নিহত হয়।
দুর্ঘটনার পর পরই চালক বাসটি ফেলে পালিয়ে যায়। বরিশাল মহানগর পুলিশ লাইন্স থেকে রেকার গিয়ে বাসটি উদ্ধার করে। বিএমপি’র বিমান বন্দর থানার ওসি জানিয়েছন, বাসটির চালক পলাতক রয়েছে। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। সড়কটিতে যানবাহন চলাচল স্বভাবিক রয়েছে।
স্টাফ রিপোর্টার, মাগুরা থেকে জানান: এক গৃহবধুর লাশ নিয়ে আসার পথে লাশ হলেন এক এ্যাম্বুলেন্স চালক। শুক্রবার সকাল ৮ টার দিকে মাগুরা- যশোর সড়কের মঘির ঢাল নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঢাকা মেডিকেল থেকে এক গৃহবধুর লাশ নিয়ে আসার পথে আবুল হোসেন(৩২) নামে উক্ত চালক নিহত হয়। আহত হয়ে ৪ জন। নিহত আবুল হোসেন গোপালগঞ্জ জেলার বৈলতৈল গ্রামের নান্নু মিয়ার ছেলে। সে খুলনার সৈকত এ্যাম্বুলন্স সার্ভিসের একজন চালক ছিলেন।
ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ধামরাইয়ে ট্রাক ও সিএনজির মুখামুখি সংঘর্ষে অধির চন্দ্র পাল (৪০) নামে এক সিএনজি যাত্রী নিহত হয়েছে । এ ঘটনায় আরও দুইজন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।
শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে কাওয়ালীপাড়া- বালিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের কালিঘাট মিলগেট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত অধির চন্দ্র ধামরাই উপজেলার চৌহাট ইউনিয়নের চৌহাট গ্রামের সুবল চন্দ্র মনিদাসের ছেলে। এলাকাবাসী জানান, ট্রাকের সাথে সিএনজির মুখামুখি সংঘর্ষে বুকে চাপ লেগে ঘটনাস্থলে অধির চন্দ্র নিহত হয়।
সোনারগাঁ(নারায়ণগঞ্জ)সংবাদাদাদা জানান, উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় শুক্রবার সকালে সড়ক দুর্ঘটনায় আবু নাঈম(২৭)নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেলা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।
কাচঁপুর হাইওয়ের থানার (ওসি) আব্দুল কাইয়ূম বলেন, মোগরাপাড়া চৌরাস্তার বাসা থেকে প্রতিদিনের ন্যায় সাইকেল যোগে কর্মস্থল যাওয়ার পথে মোগরাপাড়া বাসষ্টান্ডে একটি অজ্ঞাত নামা দ্রুতগামী বাস তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। নিহত আবু নাঈম উপজেলার টিপরদি এলাকার মেঘনা গ্রুপের ইকোনোমিক জোনে কর্মরত শ্রমিক। নিহতের বাড়ি পটুয়াখালী সদর উপজেলায় বলে যানা গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন