Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

এমপিওভুক্তির দাবিতে শিক্ষকদের বিক্ষোভ চলছে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ মার্চ, ২০১৯, ১১:৪১ এএম
এমপিওভুক্তির দাবিতে টানা তৃতীয় দিনের মতো জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান করে আছেন নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা। শিক্ষক নেতারা বলছেন, এবার আমরা কারো আশ্বাস শুনবো না। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যতক্ষণ না সাক্ষাত হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত রাজপথ ছাড়বো না। 
 
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকে পদযাত্রা শুরু করেছিলেন তারা। কিন্তু পুলিশের বাধার মুখে প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে অবস্থান নেন।
 
নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশন বলছে, দেশের নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একযোগে এমপিওভুক্তির দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে নিয়মতান্ত্রিকভাবে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নানা কর্মসূচি পালন করে আসছে। সরকারের পক্ষ থেকে বারবার আশ্বাস দেয়া হলেও তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে না। এ জন্য নতুন কর্মসূচিতে নামতে হয়েছে।
 
নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. বিনয় ভূষণ রায় বলেন, ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব এসে আমাদের জানান- প্রধানমন্ত্রী দাবি মেনে নিয়েছেন। অনশন ভেঙে আমাদের ঘরে ফিরে যেতে বলেছেন। এরপর জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরীসহ কয়েকজন এসে আমাদের বাড়ি ফিরে যেতে বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু কোনও অগ্রগতি হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে আবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির দাবিতে আবারও রাজপথে নেমেছি। আমরা সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণভাবে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকে পদযাত্রা করতে চাইলে আমাদের আটকে দেয়া হয়। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চাই। তাকে আমরা আমাদের কথা জানাতে চাই। প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ না পাওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথ ছাড়ব না।
 
জানা গেছে, সারাদেশের ৫ হাজার ২৪২টি নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েক হাজার শিক্ষক-কর্মচারী প্রেসক্লাবের সামনে উপস্থিত হয়েছেন। 
 
এদিকে টানা তিন দিন অবস্থানের কারণে অনেক শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। রাস্তা অবরোধের কারণে জাতীয় প্রেসক্লাবের আশপাশের সড়কে সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক যানজট।


 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ