Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

পাঁচ কোটি টাকার মালামাল ও এক কোটি নগদ টাকা পুড়ে ছাই

কুমিল্লার রাজগঞ্জ বাজারে অগ্নিকাণ্ড

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে : | প্রকাশের সময় : ২৬ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

কুমিল্লা নগরীর সবচেয়ে বড় ও প্রাচীন বাজার রাজগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে ৫২টি দোকান। গত শনিবার গভীর রাতে আগুনের এ ঘটনায় দেশি বিদেশি মূল্যবান কসমেটিকস, শিশু খাদ্যপণ্যসহ পাঁচ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। দোকানের ক্যাশে রক্ষিত অন্তত এক কোটি টাকা পুড়ে গেছে।
বিদ্যুতের শটসার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে বলে ধারণা করছেন ব্যবসায়িরা। রাজগঞ্জ বাজারের দক্ষিণ গেইটের প্রায় সাতটি গলিতে ছোটবড় দেড়শ’ দোকান রয়েছে। এসব দোকানের বেশিরভাগই দেশি বিদেশি কসমেটিকসের পাইকারি দোকান। এছাড়াও শিশু খাদ্যপণ্য, মনোহারি, খেলনা, শিক্ষাসামগ্রী ও দেশি বিদেশি ব্যাগের দোকান। শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বেচাবিক্রি শেষে দোকানিরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যান। বেশির ভাগ দোকানিই বিক্রির টাকা দোকানে রেখে গেছে পরদিন রোববার ব্যাংক খোলার দিনে জমা দেবেন ভেবে। আর শনিবার রাত ৩টার দিকে আগুনের লেলিহান শিখা বাজারের ৩টি গলির প্রায় ৫২টি দোকান পুড়ে ছাই করে দেয়। বাজারের আশপাশে বসবাস করেন এমন ব্যবসায়িরা খবর পেয়ে রাতে এলেও আগুনের তীব্রতায় নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাছে পৌঁছাতে পারেননি। আর সকালে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়িরা ঘটনাস্থলে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েন।
কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ম্যানেজার আলমগীর হোসেন জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে কুমিল্লা সদর, চান্দিনা, সদর দক্ষিণ ও ইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। বাজারের কসমেটিকস ব্যবসায়ী ইন্দ্র কুমার সিংহসহ অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়িরা জানান, মূল্যবান মালামালের পাশাপাশি গত দুইদিন ব্যাংক বন্ধ থাকায় তাদের পণ্য বিক্রির টাকা দোকানের ক্যাশে রেখেছিলেন, তাও পুড়ে গেছে।
এদিকে গতকাল রোববার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য হাজী আকম বাহাউদ্দিন বাহার, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন মেয়র মনিরুল হক সাক্কু, জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীরসহ প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তারা। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়িদের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অগ্নিকাণ্ড


আরও
আরও পড়ুন