Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

ফলাফল নির্ভর প্রশিক্ষণে জোর দিতে হবে

মতবিনিময়ে এলজিআরডি মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ২৬ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, সাফল্য লাভের জন্য শুধু প্রশিক্ষণ দিলেই হবে না তা যথাযথভাবে কাজে লাগাতে হবে এবং ফলাফল নির্ভর প্রশিক্ষণের ওপর জোর দিতে হবে। গতকাল রোববার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁও জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট (এনআইএলজি)-এর দাপ্তরিক কার্যক্রম পরিদর্শন ও ৫১তম বোর্ডসভা শেষে কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন।
জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট (এনআইএলজি) ১৯৬৯ সালের ১ জুলাই লোকাল গভর্নমেন্ট ইনস্টিটিউট নামে প্রতিষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠানটির নামকরণ করা হয় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব লোকাল গভর্নমেন্ট। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীনে এনআইএলজি একমাত্র প্রশিক্ষণ ও গবেষণামূলক প্রতিষ্ঠান হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট আইন, ১৯৯২ অনুযায়ী পরিচালিত হচ্ছে।
সভায় আরও জানানো হয়, স্থনীয় সরকার প্রতিষ্ঠান জনপ্রতিনিধি, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষে প্রতিষ্ঠানটি থেকে ২০০৯-২০১৮ পর্যন্ত ২,৯৬১টি প্রশিক্ষণ কোর্সে মোট ১ লাখ ৪১ হাজার ৫৫৬ জন জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তা-কর্মচারীকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউট-এর কার্যক্রম ও সাফল্য সম্পর্কে মন্ত্রীকে বিস্তারিত অবহিত করা হয়। মন্ত্রী এসময় কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সাথে কথা বলেন ও প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করতে নির্দেশনা প্রদান করেন।
এদিকে বিশ্ব নারী দিবস উপলক্ষে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর মিলনায়তনে ১০ জন নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ আত্মনির্ভরশীল নারীকে সম্মাননা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, নারী সমাজকে উন্নয়নের মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে হবে। এশিয়ার, জাপান, চীন, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ডসহ যে সব দেশ আজ উন্নত হয়েছে সেখানে নারীরা আগে এগিয়ে এসেছে। নারীদের সহযোগিতা ছাড়া দেশে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয়।
তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বের প্রশংসা করেন। শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশে নারী উন্নয়নে সাফল্য এসেছে। মন্ত্রী বলেন, সরকার দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নারীদের সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়ন করছে। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি স্বপন ভট্টাচার্য্য, এমপি এলজিইডির এমন অনুষ্ঠানের ভ‚য়সীপ্রশংসা করেন। তিনি জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয় সচিব এস.এম. গোলাম ফারুক, এলজিইডির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও সভাপতি এলজিইডি জেন্ডার ও উন্নয়ন ফোরাম মো. মোসলে উদ্দিন। আরো বক্তব্য রাখেন নির্বাহী প্রকৌশলী, এলজিইডি ও সদস্য সচিব, এলজিইডি জেন্ডার ও উন্নয়ন ফোরাম সৈয়দা আসমা খাতুন।
এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, নারী জাগরণে এলজিইডি কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রতি বছর এলজিইডি, আত্মনির্ভরশীল নারীদের সম্মাননা ও পুরস্কৃত করে নারী সমাজকে আরো সাবলম্বী করার প্রয়াস চালায় এলজিইডি।
তিনি আরো বলেন, নারী সমাজের অধিকার আদায়েও কাজ করছে এলজিইডি। পরে মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম ১০ জন শ্রেষ্ঠ স্বাবলম্বী নারীকে এলজিইডি প্রদত্ত সম্মাননা পুরস্কার ও নগদ জনপ্রতি ১০ হাজার টাকা প্রদান করেন।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফলাফল

১৭ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন