Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ইসরায়েলের তেল আবিবের কাছে রকেট হামলা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ মার্চ, ২০১৯, ২:১৭ পিএম

একটি দীর্ঘপাল্লার রকেট ইসরায়েলের মধ্যাঞ্চলের একটি বাড়িতে আঘাত হেনেছে এবং এতে ছয় জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ।
দীর্ঘপাল্লার ওই রকেটটি সোমবার ফিলিস্তিনের গাজা ভূখণ্ড থেকে ছোড়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ইসরায়েল, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

২০১৪ সালের গাজা-ইসরায়েল যুদ্ধের পর এই প্রথম এ ধরনের ঘটনা ঘটলো বলে জানিয়েছে দেশটি।

সোমবার ভোরে তেল আবিবের উত্তরে কৃষিপ্রধান শহর মিশমেরেতের একটি বাড়িতে রকেটটি আঘাত হানে।

ইসরায়েলের মেগান ডেভিড অ্যাডম অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস জানিয়েছে, মিশমারেতের একটি বাড়ির আহত ছয় বাসিন্দাকে চিকিৎসা দিচ্ছে তারা, আহতদের মধ্যে একটি বাচ্চা শিশুও রয়েছে।

টেলিভিশনে সম্প্রচারিত ছবিতে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত একটি বাড়ি দেখানো হয়েছে। বাড়িটিতে আগুন ধরে গিয়েছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী ওই এলাকায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সতর্কতা জানিয়ে সাইরেন বাজানোর কয়েক মিনিট পরই রকেটটি আঘাত হানে। এই রকেটটি গাজা ভূখণ্ড থেকে ছোড়া হয়েছে বলে অভিযোগ ইসরায়েলি বাহিনীর।

সমুদ্র তীরবর্তী গাজা ভূখণ্ড মিশমারেত থেকে ৮০ কিলোমিটার দক্ষিণে। গাজা নিয়ন্ত্রণকারী হামাস ও ভূখণ্ডটির অন্যান্য সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর কাছে এ ধরনের রকেট আছে বলে ধারণা করা হয়।

গাজা থেকে ছোড়া রকেটের আঘাতেই মিশমারেতের বাড়িটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইমানুয়েল নাশন।

তাৎক্ষণিকভাবে ফিলিস্তিনের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য আসেনি। ওয়াশিংটন সফরে থাকা পঞ্চম মেয়াদের জন্য ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর কাছ থেকেও এ বিষয়ে তাৎক্ষণি কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

ইসরায়েল জানিয়েছে, ১৪ মার্চও তেল আবিবে দুটি রকেট এসে পড়েছিল, কিন্তু তাতে কেউ হতাহত বা কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ওই রকেট দুটি হামাসই ছুড়েছিল বলে অভিযোগ তাদের।

ইসরায়েলে বাণিজ্যিক রাজধানী তেল আবিব ও প্রান্তিক এলাকাগুলো ২০১৪ সালের গাজা-ইসরায়েল যুদ্ধের সময় শেষ এ ধরনের হামলার মুখে পড়েছিল।

গাজা সীমান্ত প্রতিবাদের বার্ষিকীর আগে উত্তেজনাপূর্ণ সময়টিতে এ রকেট হামলাটি চালানো হলো বলে মন্তব্য রয়টার্সের।



 

Show all comments
  • mj ahmad ২৬ মার্চ, ২০১৯, ৭:১১ এএম says : 0
    এটা ৩য় বিশ্বযুদ্ধের লক্ষন। ইমাম মাহাদি আসার সময় খুব কাছেই মনেহচ্ছে। মুসলমানদের জয় খুব কাছেই ইনশাআল্লাহ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন