Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

প্রতিবন্ধী তরুণ লেখিকা একাই বিলি করলেন ৫ শ লালসবুজ পতাকা

ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ মার্চ, ২০১৯, ৩:৫৩ পিএম

প্রতিটি বাড়ির ছাঁদে উড়ুক লাল সবুজের সমারোহ, সে আশায় একাই ৫ শ জাতীয় পতাকা বিলি করলেন এক প্রতিবন্ধী তরুণী লেখক। নাম জুঁই জেসমিন। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসকে সামনে রেখে তাঁর এই উদ্যোগ ঠাকুরগাঁওয়ের গ্রামীণ জনপদে ব্যপক উদ্দীপনা এনেছে মানুষের মধ্যে স্বাধীনতা ও মহান মুক্তিযুদ্ধের আবেগে। 

জলার পাঁচ উপজেলায় ৫ শতাধিক পতাকা বিতরণ করা প্রসঙ্গে তিনি বললেন, আমরা দেখছি এদেশে বিশ্বকাপের সময় নানা দেশের পতাকা উড়ছে, কিন্তু লাল সবুজের যে পতাকা অগুনতি প্রাণ আর মা বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে তা ঘরে উড়তে দেখিনা। এখান থেকেই আমি এই উদ্যোগের প্রেরণা পেয়েছি। সোমবার বিকালে এই প্রতিবন্ধী তরুণী জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দুওসুও জোতপাড়া, আরাজি সরলিয়া, কালমেঘ, কাদশুকাসহ আরও বেশ কয়েকটি গ্রামে পায়ে হেটে বাড়ি বাড়ি গিয়ে দেশের জাতীয় পতাকা বিতরণ করেন।
এ সময় বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা দবিরুল ইসলাম, বশির উদ্দিন ও তার ছেলে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সভাপতি মোকলেসুর রহমানসহ স্থানীয় সংবাদকর্মীরা সাথে ছিলেন। এদিকে পীরগঞ্জ, হরিপুর, রাণীশংকেল ও সদর উপজেলায় একই ভাবে পতাকা বিতরণ করা হয়েছে।
তাঁর আশা, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের সূর্য উদয়ের সাথে সাথে বাড়ি বাড়ি উড়বে লাল সবুজের এই পতাকা। দেশের এই পতাকা পেয়ে খুশি স্থানীয়া। ব্যতিক্রম এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও এলাকাবাসী। 'সাফল্যের চিঠি' নামে গল্পগ্রন্থ ও শিশুতোষ গল্পের বই 'এসো গল্প পড়ি জীবন গড়ি' গ্রন্থের প্রণেতা এই জেসমিন জুঁই শারীরিক প্রতিবন্ধকতা জয় করে এগিয়ে যাচ্ছে জীবন জয়ের দিকে, এমন আশাবাদ ব্যক্ত করলেন শিক্ষাবিদ ঠাকুরগাঁও সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু বক্কর সিদ্দিক।
(২৬ মার্চ) মহান স্বাধীনতা দিবসে সূর্য উদয়ের সাথে সাথে বাড়ী বাড়ী উড়েছে লাল সবুজের এই জাতীয় পতাকা। দেশের এই পতাকা পেয়ে খুশী স্থানীয়রা। এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এলাকাবাসি। তরুণ লেখিকা জুই জেসমিন বলেন, দেশের পতাকা ঘরে ঘরে পৌছে দেয়া ও মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর পরিসর আরো বৃদ্ধি করা হবে। এ জন্য সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

 



 

Show all comments
  • Muhammad Zahir Rayhan ২৭ মার্চ, ২০১৯, ১২:১১ পিএম says : 0
    এই দেশকে আমরা বালোবাসি প্রয়োজন হলে এই দেশের জন্য জীবন দিব কিন্তু শহিদ হয়েছে ৩০ (ত্রিশ) লক্ষ বা আরও বেশী বাংঙ্গালী অর্জিত রক্তে রঞ্জিত বাংলার স্বাধীন মানুষ গুলো কি তাদের আসল সম্পান দিতে পেরেছে কি? শুধু মুখে বলে এইদেশকে আমরা বালোবাসি বৎসরে একবার স্মৃতিশোদে যেয়ে ফলের বন্যা বয়েদিয়ে এটাকি বালোবাসা তা হলে প্রকৃত বালোবাসা কোনটি তা কি আমরা জানি না জানার চেষ্টা কি করেছি? তাদের জন্য যে ফুলের বন্যা বয়ে দেয়া হলো তারা কি এটার গ্রান পায় না তাদের কোন উপকারে আসে আজ যদি ২০ কোটি মানুষ তাদের জন্য যে টাকা দিয়ে ফুলে বন্যাবয়ে দিয়েছি সে টাকা দিয়ে যদি এ দেশে কত মানুষ না খেয়ে থাকে থাকার যায়গা নাই মানুষের এক মুঠো খাওয়া জুটেনা তাদের জন্য কি চিন্তা করেছি আমরা যদি এই ৪৮ বৎসর আটচল্লিশবার মহান আল্লাহর কাছে দোয়া প্রার্থনা করে বলেছি যে আল্লাহ যারা এই দেশের জন্য যারা প্রান দিয়েছে তাদের তুমি জান্নাত দান করুন তা হলে আজ শহিদদের আত্মা শান্তি পাইত আর যারা দুনিয়ায় জীবন যুদ্ধে এক বেলা খাওয়া জুটেনা তাদের জন্য কি আমরা নিজের হাত প্রসারিত করতে পারিনা আজ জাতীয় ভাবে কত সম্পদ অপচয় হয় তার হিসাব নেবে কে? এটা হলো প্রকৃত বালোবাসা হয়তো কারো কাছে ভালো লাগবে না এটাই বাস্তব আল্লাহ সকলকে বুঝার তাওফিক দান করুন আমিন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্বাধীনতা দিবস


আরও
আরও পড়ুন