Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

তদন্তের সমর্থকরা অবৈধভাবে ক্ষমতা নিতে চেয়েছিল : ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত ফের বন্ধ করে দেয়ার হুমকি মার্কিন প্রেসিডেন্টের

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ৩০ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

রিপাবলিকান শিবির ও রাশিয়ার ‘সম্ভাব্য আঁতাত’ নিয়ে স্পেশাল কাউন্সেল রবার্ট মুলারের তদন্তকে যারা সমর্থন দিয়েছিল, তারা ২০১৬-র নির্বাচনের ফল উল্টে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলে চেষ্টা করেছিল বলে অভিযোগ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বৃহস্পতিবার মিশিগানে রিপাবলিকান পার্টির এক প্রচার সমাবেশে তিনি এ অভিযোগ করেন বলে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের। ট্রাম্প ক্ষমতায় বসার কয়েক মাস পর মার্কিন বিচার বিভাগ ২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে রিপাবলিকান শিবির ও মস্কোর মধ্যে কোনো আঁতাত হয়েছিল কিনা এবং এ সংক্রান্ত এফবিআইয়ের তদন্তে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাধা দিয়েছিলেন কিনা তা খতিয়ে দেখতে মুলারকে স্পেশাল কাউন্সেল হিসেবে নিয়োগ দেন। দীর্ঘ ২২ মাস পর গত সপ্তাহেই মুলার তার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন; ওই প্রতিবেদনে ট্রাম্প শিবিরের কারও সঙ্গেই রাশিয়ার কোনো আঁতাত ছিল না বলে রোববার মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বারের সারসংক্ষেপে বলা হয়েছে। মুলারের তদন্তে যুক্তরাষ্ট্র ‘আঘাত পেয়েছে’ উল্লেখ করে ট্রাম্প তার বিরোধীদের ‘পরাজিত’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন। তদন্ত যে অবশেষে সমাপ্ত হতে যাচ্ছে, তাতে প্রকাশ করেছেন উল্লাস। “তিন বছর ধরে বলা মিথ্যা, কলঙ্ক লেপন ও অপবাদের পর অবশেষে শেষ হতে যাচ্ছে রাশিয়া (তদন্ত) নিয়ে ধাপ্পাবাজি। আঁতাতের বিভ্রম কেটে গেছে। অপর এক খবরে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত ফের বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বৃহস্পতিবার টুইটারে দেয়া এক বার্তায় এ হুমকি দেন তিনি। ট্রাম্প দাবি করে বলেন, আমেরিকার দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রতিবেশি দেশ মেক্সিকো অবৈধ অভিবাসীদের অবাধে সীমান্ত অতিক্রমের সুযোগ দিচ্ছে। এ কারণে ‘দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্ত বন্ধ করে দেয়া হতে পারে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের দেশে প্রবেশ করতে চাওয়া অবৈধ অভিবাসীর ঢল বন্ধে সহযোগিতা করার ব্যাপারে মেক্সিকো কিছুই করছে না। এ ব্যাপারে তারা সবকিছু করার কথা বললেও বাস্তবে দেশটি কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না।’ ‘একইভাবে হন্ডুরাস, গুয়েতেমালা ও এল সালভাদর বছরের পর বছর ধরে আমাদের অর্থ নিলেও তারাও কিছু করছে না। এটা খুবই খারাপ।’ এমন পরিস্থিতিতে ট্রাম্প নতুন করে এ সীমান্ত বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিলেন। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকো পৃথক দু’টি দেশ হলেও তাদের মধ্যে ব্যাপক অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সম্পর্ক থাকায় বিশ্বের ব্যস্ততম সীমান্তগুলোর অন্যতম হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্ত। রয়টার্স, এএফপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ট্রাম্প


আরও
আরও পড়ুন