Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

খুঁজে খুঁজে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের দেশছাড়া করবো: বিজেপি সভাপতির হুশিয়ারি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ মার্চ, ২০১৯, ৯:৪২ এএম

আবার ক্ষমতায় এলে খুঁজে খুঁজে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের দেশছাড়া করা হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনী প্রচারণায় তিনি বলেন, মোদি সরকার ফের ক্ষমতায় এলেই আমরা বাংলায় ‘জাতীয় নাগরিক নিবন্ধন’ (এনআরসি) আনবো। এছাড়া আসামের মতো প্রত্যেক বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীকে খুঁজে বের করে বিতাড়িত করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন অমিত শাহ। তবে হিন্দু ও বৌদ্ধদের সুরক্ষা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিজেপি সভাপতি এদিন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সরকারের কঠোর সমালোচনা করে বলেন, মোদি সরকার ফের ক্ষমতায় এলেই আমরা বাংলায় এনআরসি আনবো। আসামের মতো প্রত্যেক বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীকে খুঁজে বের করে বিতাড়িত করা হবে।

তবে এনআরসি বাস্তবায়ন হলেও রাজ্যের সব শরণার্থীর অধিকার সুরক্ষা নিশ্চিত হবে বলে জানিয়েছেন অমিত শাহ। তিনি বলেন, এনআরসি জনগণের প্রতি আমাদের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির অংশ। হিন্দু ও বৌদ্ধ শরণার্থীদের কোনও ভয় নেই। তাদের দেশছাড়ার দরকার হবে না। তারা যাতে এখানে মর্যাদার সঙ্গে থাকতে পারে আমরা তা নিশ্চিত করবো।

এদিকে মমতা ব্যানার্জি বাংলার সংস্কৃতি ধ্বংস করে দিচ্ছেন উল্লেখ করে বিজেপি সভাপতি বলেন, মাদরাসাকে চার হাজার কোটি রুপি অনুদান দেয়া হয়েছে। কিন্তু ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ারদের কোনও গুরুত্ব নেই তার কাছে।

অমিত শাহ আরও দাবি করেন, রাজ্যের সব মসজিদের ইমামকে মাসে মাসে ভাতা দেয়া হচ্ছে। কিন্তু মন্দিরের পুরোহিতদের দেয়া হচ্ছে না। সম্প্রতি এনআরসি তালিকা থেকে আসামের প্রায় ৪০ লাখ মানুষের নাম বাদ পড়েছে। নাগরিক তালিকা থেকে ঠিক কী কারণে নাম বাদ পড়ল- জানার অপেক্ষায় রয়েছেন আসামের ওই ৪০ লাখ বাসিন্দা।

উল্লেখ্য, আগামী ১১ এপ্রিল থেকে ভারতে লোকসভা নির্বাচন শুরু হবে। এই নির্বাচনকে ঘিরে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি ও চেনা সুরে হুঙ্কার দিয়ে যাচ্ছে হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি।



 

Show all comments
  • NANNU CHOWHAN ৩১ মার্চ, ২০১৯, ৯:৫১ এএম says : 0
    Apnara bangladesher opoman o shimante hotta kore bangladeshi shikkhito seleder bekar kore boidho oboidhovabe shob chakurite faida bebosha banijje faida lootsen,Inshah Allah eakdin apnadero eai faida loota theke bitarito korbo....
    Total Reply(0) Reply
  • ABU ABDULLAH ৩১ মার্চ, ২০১৯, ১১:৩৭ এএম says : 0
    হিন্দুদের দেশে বাংলাদেশি যাওয়ার দরকার নাই তবে বাংলাদেশেই হিন্দুরা ফুল হয়ে আছে
    Total Reply(0) Reply
  • Kamal ৩১ মার্চ, ২০১৯, ১০:১২ এএম says : 0
    আমাদের দেশের কোন লোক ভারতে বসবাস করে না। এটা হল আপনাদের নির্বাচনে প্রচার।জনাব ভারত এমন কোন বিত্তশালী দেশ না যে সেখা‌নে বাংলা‌দে‌শের মানুষ কা‌জের জন্য যা‌বে।বাংলাদেশে মানূষের জীবন-মান ইন্ডিয়ার চেয়ে আকর্ষনীয় ! বাংলাদেশীরা ইন্ডিয়ায় যায় বেড়াতে, চিকিতসা করাতে আর গরু কিনতে ! না গেলে আপনাদের অর্থনীতির বারটা না হলেও ৮/১০ টা বাজবে ! আমরা ইন্ডিয়ানদেরকে সর্বউচ্চ বেতন দিয়ে চাকুরী দিই,অবৈধভাবে 22 লক্ষ ভারতীয় নাগরিক বাংলাদেশে চাকুরীরত,তাঁদেরকে এই দেশ থেকে বের করে দিলে ভারত অচিরেই ভিখারনির দেশ হবে!ইন্ডিয়ানরা যা করেন, তাহলে বাংলার জনগন তাই করবে, বাংলাদেশ থেকে 22 লক্ষ ইন্ডিয়ানদেরকে খুজে খুজে বের করে দেওয়া হবে। যারা ভারতকে বাপ এবং ভাতার মনে করে তারা শুনছ নাকি?এইসব ভারতীয় নেতাদের গালে জুতা মেরে ভারতের বন্ধুত্ব ত্যাগ কর ! Copy & Edited
    Total Reply(0) Reply
  • ম নাছির উদ্দীন শাহ ৩১ মার্চ, ২০১৯, ১:৫৪ পিএম says : 0
    শত শত বসর মূসলিম শাসনের পরাজয়। মীর জাফরের উত্তরসুরী কিছু রাজনৈতিক নেতা। রাজনৈতিক পায়দা জন্য বলেন। খুজে খূজে বাংলাদেশী বাহির করে দেব। এটি সংখ্যা গরিষ্ঠ ভারতীয় জন সাধারনের মতামতের উপর নয়। আমিত বাবু বিশ কোটির অধিক মুসলিম ভারতীয়। ভোটের রাজনীতি করতে হলে। আপনী আর দামূদার কাকা মমতা দিদির কাজ রাজনীতি শিক্ষানিন। আমরা বাংলাদেশীরা স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য ইন্ধারাগান্ধি অসামান্য অবদানের শ্রদ্ধা করি। ভারতীয় জনগন সম্মান করি। এদেশের হিন্দুদের সাথে আমাদের সম্পর্ক ওরা ও বাংলাদেশের জনগন। গুজরাট মার্কা চিন্তা বাদ দেশের জন্য রাজনীতি করুন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অমিত শাহ


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ