Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২০ মে ২০১৯, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৪ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

শিশুর মানবিকতা!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ভারতের মিজোরাম প্রদেশের এক শিশু মানবিকতার এক উজ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে উঠেছে। মাত্র পাঁচ বছর বয়সেই তার মধ্যে যে মানবতাবোধ, মানবিক মূল্যবোধ, দায়িত্বশীলতা ও ভালবাসার প্রকাশ ঘটিয়েছে তাতে আপ্লুত মানুষ। শিশুটি শিখিয়ে দিয়েছে মানুষের অনুভূতি কেমন হতে হয়। কি কারণে মানুষ হয়ে উঠেছে মানুষ, আর পশুরা পশু।
শিশুটি বাসার সামনে খোলা জায়গায় বাইসাইকেল চালানোর সময় হঠাৎ করে প্রতিবেশীর পালা একটি মুরগির ছানার ওপর উঠিয়ে দিয়েছিল। এতে অপরাধবোধ তাকে গ্রাস করে। নিজেকে কিছুতেই ক্ষমা করতে পারছিল না। উপায় খুঁজতে থাকে সে। সঙ্গে সঙ্গে ঘরে গিয়ে নিজের কাছে যেটুকু অর্থ ছিল তাই নিয়ে ছুটে যায় হাসপাতালে। সঙ্গে নিয়ে যায় ওই মুরগির ছানাটিকে। ডাক্তারদের কাছে করুণ আর্তি জানায়, ছানাটিকে সুস্থ করে দিতে। তাকে বাঁচিয়ে তুলতে। এমন অনুভূতি ও মানবিকতার ডাক অনেককে অভিভূত করেছে।
ওই শিশুর একটি ছবি ফেসবুকে প্রকাশ করেছে সাঙ্গা সায়স নামে একটি একাউন্ট ব্যবহারকারী। তবে তার নাম পরিচয় জানা যায়নি। ছবির ক্যাপশনে ওই পোস্টদাতা লিখেছেন, শিশুটির কান্ড দেখে আমি হেসেছি। আবার কেঁদেছি সারাক্ষণ। এই পোস্টটি দেওয়ার পর মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ে এর ওপর। এতে লাইক পড়েছে এক লাখ ২১ হাজার। কমেন্ট করেছেন ১০ হাজার মানুষ। আর শেয়ার হয়েছে ৮৪ হাজার বার।
মন্তব্যে একজন লিখেছেন, মানুষ হওয়ার অর্থ এই নয় যে, মানবতা হলো একজন মানুষের সম্পত্তি। মানবতায় ধন্য হওয়া ব্যক্তি বিশেষের পছন্দ। এখনই উত্তম সময় এই শিশুটির কাছ থেকে দয়ার বিষয়ে শিক্ষা নেয়া। সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস ডটকম।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শিশু


আরও
আরও পড়ুন