Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমজান ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

তৃতীয় রাউন্ড শেষে চতুর্থ স্থানে সিদ্দিকুর

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:৫৮ পিএম

বঙ্গবন্ধু কাপ গলফ ওপেনের শুরু থেকেই শিরোপা লড়াইয়ে ছিলেন না দেশসেরা গলফার সিদ্দিকুর রহমান। প্রথম থেকে তৃতীয় রাউন্ড পর্যন্ত শীর্ষে থাকার সম্ভাবনাও ছিলনা তার। তাই চ্যাম্পিয়ন ট্রফির প্রত্যাশা সিদ্দিকুরের নেই বললেই চলে। শুক্রবার শেষ হওয়া তিন রাউন্ড মিলিয়ে পারের চেয়ে ১১ শট কম খেলে যৌথভাবে চতুর্থ স্থানে রয়েছেন তিনি। আন্তর্জাতিক এ আসরে স্বাগতিক গলফারদের মধ্যে সেরা দশে সিদ্দিকুরের পরে রয়েছেন আকবর হোসেন। পারের চেয়ে ৯ শট কম খেলে যৌথভাবে সপ্তমস্থানে আছেন প্রথম বারের মতো এশিয়া ট্যুরে খেলতে নামা এই গলফার। কুর্মিটোলা গলফ কোর্সে সাড়ে ৩ লাখ ডলার প্রাইজমানির এ প্রতিযোগিতায় সব মিলিয়ে পারের চেয়ে ১৮ শট কম খেলে শীর্ষে রয়েছেন থাইল্যান্ডের সাদোম কায়েওকানজানা। দ্বিতীয় ও তৃতীয়স্থানে আছেন ভারতের তরুন দু’গলফার রশীদ খান ও আজিতেশ সান্দু। পারের চেয়ে ১৬ শট কম লিডার বোর্ডে দু’নম্বরে রয়েছেন রশীদ খান। ১২ আন্ডার পারে তিনে রয়েছেন আভিতেশ সান্দু।

চেনা পরিবেশ, জানা কোর্স কুর্মিটোলা। তারপরও শীর্ষে উঠতে পারেননি সিদ্দিকুর। তবে শুক্রবার দারুন একটি দিন কাটিয়েছেন তিনি। কোনো বোগি না করলেও মাত্র তিনটি বার্ডি করেছেন দেশসেরা গলফার। ভালো খেলেও বার্ডি না পেলেও অতৃপ্ত নন সিদ্দিকুর। দিনের খেলা শেষে তিনি বলেন, ‘আগের দু’রাউন্ডের মতো আজকের রাউন্ডও ভালো ছিল। আমি নিজেকেই ধন্যবাদ দিবো। ৩ দিনে মাত্র একটা বোগি হয়েছে। আপনারা দেখতে পাচ্ছেন আমি খুব কম ভুল করেছি। সবকিছু মিলিয়ে আমার তিনটা রাউন্ডই দারুন কেটেছে। যদিও বার্ডি নাম্বার কম রয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে ১১ আন্ডার পার ছিল।’ দুপুরে হঠাৎই কুর্মিটোলায় দেখা মিললো বৃষ্টির। বৃষ্টির সময় ১৪ নম্বর হোলে ছিলেন সিদ্দিকুর। এসময় তার খেলতে অসুবিধা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে বলেন, ‘খেলার সময় আমার মনে হয়নি বৃষ্টি হচ্ছে। তবে ১৫ নাম্বারে হোলে একটু সমস্যা হচ্ছিল। এখানে খারাপ হয়েছে। তবে আমি বৃষ্টির দোষ দেবো না। আমার সমস্যা না হলেও বৃষ্টি অনেকের সমস্যা করেছে বলে মনে হচ্ছে।’ শেষ রাউন্ডে ভালো করার প্রত্যাশা সিদ্দিুকরের। তার কথায়, ‘আমার আসলে কিছুই করার নেই। আমার ভুল একেবারেই কম হচ্ছে। হ্যাঁ, পার্টিং কিছু পরছে কিছু পরছে না। জাস্ট মেটার অফ টাইমিং। আশা করছি ফাইনালের দিনে পার্টিংটা ভালো হবে।’

তৃতীয় রাউন্ডে সিদ্দিুকুর যেখানে মাত্র ৩ টি বার্ডি করেছেন, সেখানে ৬ টি বার্ডি পেয়েছেন স্বাগতিকদের তরুন গলফার আকবর হোসেন। ছয়টা বার্ডির পাশাপাশি তিনটি বোগি করেছেন তিনি। যে কারনে দিন নয় আন্ডার পারে যৌথভাবে সপ্তমস্থানে রয়েছেন আকবর। ছয় বার্ডি ও তিন বোগিতে দিন শেষ করে আকবর বলেন, ‘চাপ নয় আমি আমার সেরা খেলাটাই খেলছি। আমি নতুন গলফার। মাত্র এক বছর হয়েছে প্রফেশনাল গলফারের খাতায় নাম লিখিয়েছি। এবারই প্রথম এশিয়ান ট্যুরে খেলছি। যা হয়েছে তাতেই আমি সন্তুষ্ট।’

ফাইনাল দিনের প্রতাশ্যার কথা জানিয়ে আকবর বলেন, ‘আমি মাইনাসে থাকতে পারলেই সন্তুষ্ট। শনিবারও আমি মাইনাস খেলতে চাই।’ আগের দু’দিনের পারফরমেন্স ধরে রেখে স্থানীয় গলফারদের মধ্যে পারের চেয়ে পাঁচ শট কমখেলে যৌথভাবে ১৪তম স্থানে আছেন সজীব আলি। তৃতীয় দিনে পাঁচটি বার্ডি করার সঙ্গে পাঁচটি বোগিও করেছেন তিনি। তিন আন্ডার পারে যৌথভাবে ২৪তম স্থানে জামাল হোসেন মোল্ল্যা ও মো: নাজিম এবং দুই আন্ডার পার খেলে ২৯তম স্থানে রয়েছেন মোহাম্মদ মুয়াজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বঙ্গবন্ধু কাপ গলফ
আরও পড়ুন