Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

বিএসএমএমইউ ভিসি’র ইপনা পরিদর্শন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ এপ্রিল, ২০১৯, ৫:৫৭ পিএম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ই ব্লকে ইনস্টিটিউট অব পেডিয়াট্রিক নিউরোডিজঅর্ডার এ্যান্ড অটিজম (ইপনা)-এর সেবামূলক, শিক্ষামূলকসহ বিভিন্ন কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন। শনিবার (৬ এপ্রিল) ভিসি’র পরিদর্শনের সময় অটিজম আক্রান্ত শিশু ও অভিভাবকবৃন্দের সাথে কথা বলেন এবং অটিস্টিক শিশুদের সাথে বেশকিছু সময় অতিবাহিত করেন। ইপনার পরিচালক প্রফেসর ডা. শাহীন আকতার অটিজম আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে ইপনার সামগ্রিক কার্যক্রম সম্পর্কে ভিসিকে অবহিত করেন।

ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া ইপনার সামগ্রিক কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং তিনি ইপনা প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক সদিচ্ছার জন্য কতৃজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া এ সময় ইপনা প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সুযোগ্য কন্যা, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন অটিজম বিশেষজ্ঞ, স্কুল সাইকোলজিস্ট, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক এ্যাডভাইসরি প্যানেলের বিশেষজ্ঞ, বাংলাদেশের অটিজম বিষয়ক জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির সভাপতি সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুলের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, অটিজম আক্রান্ত শিশু ও তাদের পরিবারের সেবায় ইপনা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় সবসময় পাশে থাকবে। সবধরণের সহায়তা প্রদান অব্যাহত থাকবে।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি ডা. মো. শহীদুল্লাহ শিকদার, ডা. সাহানা আখতার রহমান, কোষাধ্যক্ষ ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, রেজিস্ট্রার ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর ডা. সৈয়দ মোজাফফর আহমেদ, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে মাহাবুবুল হক প্রমুখ ছাড়াও ইপনার শিক্ষক, চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ইপনা তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অটিজম ও অন্যান্য স্নায়ুবিকাশজনিত সমস্যা সংক্রান্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় সেবা ও পরামর্শ দেবার পাশাপাশি উচ্চতর গবেষণা ও প্রশিক্ষণ কর্মসূচী পরিচালনা করে আসছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএসএমএমইউ


আরও
আরও পড়ুন