Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সম্পত্তি কমিয়ে দেখিয়েছেন অমিত শাহ, কমিশনে নালিশ কংগ্রেসের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:৩১ পিএম

কংগ্রেসের অভিযোগ, অমিত শাহ সম্পত্তি গোপন করেছেন। এবং একইসঙ্গে তিনি একটি সম্পত্তির মূল্য কম করেও দেখিয়েছেন নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামায়। তাঁর বিরুদ্ধে এই মর্মে অভিযোগ এনে গুজরাত প্রদেশ কংগ্রেস কমিশনে লিখিতভাবে অভিযোগও জমা করেছে। গান্ধীনগর থেকে অমিত শাহ এবার দলের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা লালকৃষ্ণ আদবানির বদলে প্রার্থী হয়েছেন। তিনি তাঁর মনোনয়নপত্রে যে সম্পত্তির হিসেব দাখিল করেছেন সেখানে সঠিক তথ্য প্রদান করেননি বলেই অভিযোগে কংগ্রেস জানিয়েছে। আর সেই দাবি সামনে রেখেই কংগ্রেসের কমিশনের কাছে আর্জি একটাই, গোটা বিষয়টির তদন্ত করে অমিত শাহের প্রার্থীপদ বাতিল করা হোক। পাশাপাশি তাঁর বিরুদ্ধে সম্পত্তি গোপন করা ও কমিশনে অসত্য তথ্য প্রদানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হোক। খোদ বিজেপি সভাপতির বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ নিয়ে শোরগোল শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।
এর জবাবে বিজেপি পাল্টা জানিয়েছে, এই গোটা অভিযোগই ভিত্তিহীন। কংগ্রেসের ওই লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে গুজরাত বিজেপি একটি বিবৃতি জারি করে বলেছে, কংগ্রেস পরাজিত হওয়ার ভয়ে এতই হতাশ যে এরকম মনগড়া তথ্য এনে অভিযোগ তুলছে। বিজেপি বলেছে, কমিশন যদি জানতে চায় তাহলেই স্পষ্ট নথিপত্র সহ জানানো হবে যে এই অভিযোগের কোনও ভিত্তিই নেই।
এদিকে শুধু সম্পত্তির মূল্য গোপন করার অভিযোগই নয়, কংগ্রেস অমিত শাহের সম্পত্তি বৃদ্ধি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে। কংগ্রেসের নেতা মনীশ তিওয়ারি বলেছেন, ২০১৪ সালে ১১ কোটি টাকা থেকে বেড়ে ২০১৯ সালে ৩৮ কোটি টাকার সম্পত্তি কীভাবে সম্ভব হল তার কোনও সোর্স দেখানো হয়নি। গতকাল গুজরাত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অমিত চাদভা এবং গান্ধীনগর কেন্দ্র থেকে অমিত শাহের বিরুদ্ধে প্রার্থী হওয়া কংগ্রেস নেতা সি জে চাদভা নির্বাচন কমিশনে লিখিতভাবে অভিযোগ জানান। তাঁরা বলেছেন, অমিত শাহের পক্ষ থেকে দুটি সম্পত্তি বন্ধক রেখে ঋণ গ্রহণ করা হয়েছে। পাশাপাশি একটি জমির মূল্য দেখানো হয়েছে অনেক কম করে। এই অভিযোগ করে কংগ্রেস কমিশনে দাবি করেছে অবিলম্বে তদন্ত করতে হবে। গুজরাত বিজেপির মুখপাত্র ভরত পান্ড্যা অবশ্য বলেছেন, কংগ্রেসের এই অভিযোগের বিন্দুমাত্র সত্যতা নেই। প্রদেশ কংগ্রেস তো বটেই, কংগ্রেসের দিল্লির নেতৃত্বও বুঝে গিয়েছেন এবার লোকসভা ভোটে কী ফলাফল হতে চলেছে। গান্ধীনগর তো বটেই, গোটা গুজরাতেই মুখ থুবড়ে পড়বে কংগ্রেস। তাই বিজেপি শীর্ষ নেতাদের নামে অযথা বদনাম করা হচ্ছে। মানুষ এই অপবাদের উপযুক্ত জবাব দেবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অমিত শাহ


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ