Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

শর্তাধীনেই ভারতকে বেছে নিয়েছিলাম : মুফতি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

ভারত ও কাশ্মীরের মধ্যে সম্পর্কও শেষ হয়ে যাবে বলে হুমকি দিয়েছেন জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি। তিনি বলেছেন, শর্তসাপেক্ষে কাশ্মীর ভারতের অংশ হয়েছিল। জম্মু-কাশ্মীরে ৬০/৭০ শতাংশ মুসলিম। মুসলিম অধ্যুষিত রাজ্য হওয়া সত্তে¡ও আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে না গিয়ে শর্তের ভিত্তিতে ভারতকে বেছে নিয়েছিলাম। ৩৭০ ধারা ও ৩৫-এ ধারা একটি সেতুর মতো। ‘যদি আপনারা একে শেষ করে দেন তাহলে ভারত ও কাশ্মীরের মধ্যে সম্পর্কও শেষ হয়ে যাবে।’ শুক্রবার শ্রীনগরে ইন্ডিয়া টুডে’র কন্সাল্টিং এডিটর রাজদীপ সারদেশাইকে দেওয়া বিশেষ সাক্ষাৎকারে ওই মন্তব্য করেন পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি। তিনি বলেন, জম্মু-কাশ্মীর মুসলিম অধ্যুষিত রাজ্য। বিশেষ পরিস্থিতিতে কাশ্মীর ভারতের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল এতে কিছু শর্ত ছিল। ভারতীয় সংবিধান অনুযায়ী ৩৭০ ধারা, বিশেষ মর্যাদা ও আলাদা পতাকার গ্যারান্টি দেওয়া হয়েছে। আমাদের সম্পর্কের ভিত্তি এটাই। ‘যদি আপনারা ওই শর্তকে শেষ করে দেন তাহলে ভারত থেকে কাশ্মীরের সম্পর্ক শেষ হয়ে যাবে’, হুঁশিয়ারি দেন এ নেত্রী। বিজেপি’র সঙ্গে জোট প্রসঙ্গে মেহবুবা বলেন, ‘যখন আমরা বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছিলাম তখন বলা হয়েছিল ৩৭০ ধারায় কোনও গরমিল করা হবে না। বিজেপি এতে রাজিও হয়েছিল। এসবের জন্যই আমরা বিজেপির সঙ্গে গিয়েছিলাম।’ কাশ্মীরে আলাদা প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে প্রশ্নের জবাবে মেহবুবা ন্যাশনাল কনফারেন্সের সমালোচনা করে বলেন, ‘যখন নির্বাচন আসে ন্যাশনাল কনফারেন্সের তখন আলাদা প্রধানমন্ত্রীর কথা মনে পড়ে। ওরা সংখ্যাগরিষ্ঠের সরকার গড়েছিল। সে সময় ওরা আলাদা প্রধানমন্ত্রীর কথা বলেননি। শেখ আব্দুল্লাহও এ ধরণের কথা বলেননি। এক্ষেত্রে পিডিপি’র অবস্থান হল আমরা মনে করি কাশ্মীর কিছু শর্তের ভিত্তিতে ভারতের অংশ হয়েছিল এবং শর্ত যদি ভেঙে যায় তাহলে আমাদের সম্পর্কও শেষ হয়ে যাবে।’ সম্প্রতি বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ ২০২০ সালের মধ্যে ৩৭০ ধারা, ৩৫-এ ধারা বাতিল করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন। বিজেপি বরাবরই জম্মু-কাশ্মীরের জন্য বিশেষ মর্যাদা সম্পন্ন সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করার পক্ষে সাফাই দিয়ে আসছে। মঙ্গলবার অমিত শাহ’র উদ্দেশ্যে মেহবুবা বলেছেন, যেদিন আপনারা ৩৭০ ধারা বাতিল করবেন আপনারা কাশ্মীরে তখন কেবল দখলদারি শক্তি হিসেবে থাকবেন। যেভাবে ফিলিস্তিনে ইসরাইলি দখলদারিত্ব রয়েছে সেভাবে জম্মু-কাশ্মীরেও ভারতের দখল হবে। সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও ন্যাশনাল কনফারেন্সের সহসভাপতি ওমর আব্দুল্লাহ বলেন, ‘জম্মু-কাশ্মীর অন্য রাজ্যের মতো নয়, তারা বিনাশর্তে দেশের সঙ্গে মিশে গিয়েছিল। কিন্তু আমরা বলেছিলাম আমাদের আলাদা পরিচিতি হবে, নিজেদের ভিন্ন আইন হবে, পতাকা আলাদা হবে। ইন্ডিয়া টুডে।



 

Show all comments
  • Najim Uddin ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৫৪ এএম says : 0
    মালুর সাথে না থেকে মুসলিমদের সাথে জোট দেধে নতুন পতাকার স্বাধ নিন
    Total Reply(0) Reply
  • Raihan Bin Musa ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৫৪ এএম says : 0
    ভারত কাশ্মীর চাই,,,কিন্তু কাশ্মীরের জনগণ কে চাই না,,,,আল্লামা মাহমুদ মাদানি,,
    Total Reply(0) Reply
  • Mirza Hossain ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৫৫ এএম says : 1
    বিশেষ শর্তের অধীনে কাশ্মীর তখন ভারতের সংঙে ইউনিয়ন ভুক্ত হয়েছিল। ভারত শর্ত ভংগ করলে কাশ্মীরী জনগনের অধিকার আছে বেরিয়ে আসার।
    Total Reply(0) Reply
  • শেখ শীশ মোহাম্মাদ ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৫৫ এএম says : 0
    হটাও মোদী বাঁচাও দেশ, নয়লে পাকিস্হান করবে ভারত শেষ।
    Total Reply(0) Reply
  • Atikur Rahman Noyon ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 0
    একদম রাইট। কাশ্মীর যখন ভারতের সাথে যুক্ত হয়েছিল তখন তখনকার সময়ের কাশ্মীরের নেতা হরি সিং লাল শুধুমাত্র সামরিক চুক্তিতে ভারতের সাথে যুক্ত হয়েছিল কিন্তু পরবর্তীতে ভারত এটা কে সুকৌশলে দখল করার চেষ্টা করেছে।
    Total Reply(0) Reply
  • M A Aziz Rahman ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 0
    সমুস্বরে আওয়াজ তুলুন কাশ্মীর স্বাধীনতা দিতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Nozrul Islam ৮ এপ্রিল, ২০১৯, ১:৫৭ এএম says : 0
    কাশমির ভারতের সাথে থাকলে ভারত কাশমির কে ফিলিস্তিন বানিয়ে ফেলবে
    Total Reply(0) Reply
  • md.anisur rahman ৯ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:২২ পিএম says : 0
    norendro modi not a good leader.
    Total Reply(0) Reply
  • Liton ১০ এপ্রিল, ২০১৯, ৬:১৯ এএম says : 0
    উভয় কশ্মিরের জনগন ও রাজনীতিবিদদের উচিত ভারত বা পাকিস্তানের কোনটারও সংগে না থাকা
    Total Reply(1) Reply
    • unknowm ১২ এপ্রিল, ২০১৯, ৪:০০ পিএম says : 0
      Dui kasmir ak hoya uchit

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুফতি


আরও
আরও পড়ুন