Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

১৬ সউদী নাগরিকের ওপর যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:৩০ পিএম

সউদী বংশোদ্ভূত 'ওয়াশিংটন পোস্ট' এর সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যায় মার্কিন প্রতিক্রিয়া নিয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এরই মধ্যে দেশটির কংগ্রেসের চাপে রয়েছেন। যে কারণে গত ২ অক্টোবর খাসোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে অন্তত ১৬ সউদী নাগরিকের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে কর্তৃপক্ষ। সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওয়ের দেওয়া ঘোষণার বরাতে করা প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা।
মাইক পম্পেও বলেন, ‘খাসোগি হত্যার সঙ্গে বেশ কয়েকজন বিদেশি নাগরিক জড়িত থাকার বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্য তথ্য আমাদের কাছে রয়েছে। সেই নাগরিকদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ ওঠায় তাদের পরিবারের বর্তমান সদস্যদেরও যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।’
এ দিকে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আরোপিত নতুন এই নিষেধাজ্ঞার তালিকায় সউদী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের একান্ত সহকারী সৌদ আল-কাহতানিসহ হত্যাকারী দলের মোট ১৫ সদস্যের প্রধান মাহের মুতরেবরের নামও আছে।
সম্প্রতি তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলস্থ সউদী কনস্যুলেটে সাংবাদিক খাসোগিকে হত্যার অনুসন্ধান ইতোমধ্যেই সমাপ্ত করেছে মার্কিন কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (সিআইএ)। যার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র এখনো তেমন কোনো প্রতিক্রিয়া না দেখালেও দেশটির বেশ কিছু আইন প্রণেতা দাবি করেন, খাসোগি হত্যায় সউদী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান পরোক্ষভাবে জড়িত ছিলেন। অপরদিকে খাসোগি হত্যাকাণ্ডের পরপরই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বেশ কয়েকজন সন্দেহভাজন সউদী আরবের নাগরিকের ভিসা বাতিল করে দেয়। তাছাড়া মোট ১৭ সউদী নাগরিকের উপার্জিত সম্পদও বাজেয়াপ্ত করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদী-যুক্তরাষ্ট্র
আরও পড়ুন