Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

বেনাপোলে গণধর্ষণের অভিযোগে দুই প্রতারককে আটক করেছে পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০১৯, ৪:৪৬ পিএম | আপডেট : ৪:৫০ পিএম, ১০ এপ্রিল, ২০১৯

ভালো ব্যবসার কথা বলে এক তরুণীকে (১৮) ভারতে নিয়ে আটকে রেখে গন ধর্ষণের অভিযোগে দুই প্রতারককে আটক করেছে পুলিশ।


বুধবার সকালে ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের আটক করে।
আটককৃতরা হলেন, মুন্সিগঞ্জের নিয়াচান বালিগন টুঙ্গিপাড়া গ্রামের আহম্মদ হাওলাদারের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৪৫) এবং তার সহযোগী নোয়াখালী সদরের আন্দারচর এলাকার সাইফুল ইসলামের মেয়ে হালিমা আক্তার (২৫)।
যৌন নির্যাতনের শিকার ওই তরুণী পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগে জানায়, সে ঢাকার একটি গার্মেন্টসের দোকানে চাকরি করার সুবাদে পরিচয় হয় আনোয়ারের স্ত্রীর সাথে। পরে পরিচয় হয় আনোয়ারের সাথে। আনোয়ার মাঝে মধ্যেই তার দোকানে আসা যাওয়া করতো। একদিন সে তাকে বলে ভারত থেকে থ্রি-পিচ কিনে বাংলাদেশে নিয়ে আসলে ভাল ব্যবসা হবে।
গত ৬ এপ্রিল আনোয়ারের স্ত্রী ও তার সহযোগী হালিমা তাকে সাথে করে কলকাতায় নিয়ে আনোয়ারের কাছে রেখে চলে আসে। পরে কলকাতার নোভা নামে একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে আনোয়ার মেয়েটিকে আটকে রেখে জোর করে ৪/৫ জন ব্যক্তি দিয়ে তাকে ঘন ধর্ষণ করানো হয়। বিনিময়ে আনোয়ার তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের অর্ধ গ্রহণ করে।
প্রতিদিন তাকে ৭/৮ পুরুষ ধর্ষণ করতো।


৯ এপ্রিল সন্ধ্যায় তাকে নিয়ে আনোয়ার ভারত থেকে ফিরলে সে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাকে গণধর্ষণের বিষয়টি খুলে বলে, সাহায্য চায়। এ সময় ইমিগ্রেশন পুলিশ অভিযুক্ত দুই প্রতারককে আটক করে। আজ বুধবার সকালে আইনি প্রক্রিয়ার জন্য বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়।
বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের উপ-পরিদর্শক খাইরুল ইসলাম জানান, তারা মেয়েটির কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করে অভিযুক্ত দুই অপরাধী ও ধর্ষিতা তরুণীকে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশে সোপর্দ করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ