Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০১৯, ০৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

যুক্তরাজ্যে ইসলামের বিরুদ্ধে বিষেদাগারে কাঠগড়ায় তিন নেতা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০১৯, ৬:২৭ পিএম | আপডেট : ৬:২৮ পিএম, ১০ এপ্রিল, ২০১৯

যুক্তরাজ্যের উগ্র ডান পন্থী দল ‘ব্রিটেন ফার্স্ট’ এর সাবেক ডেপুটি নেতা জায়াডা ফ্রানসেন, ইসলাম সম্পর্কে ঘৃণা ছড়ানোর উদ্দেশ্যে উগ্র বক্তব্য দিয়েছেন। উত্তর আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্ট শহরের আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি ইসলামের বিরুদ্ধে বিষেদাগার করেন। একই সাথে দলটির প্রথম সারির নেতা পল গোল্ডিং, জন ব্যাঙ্কস এবং পল রিম ইসলামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কুৎসামূলক বক্তব্য দিয়ে ইতোমধ্যে ব্যাপক সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছেন।

এই বক্তব্য দেয়ার জেরে জন্য ৩৩ বছর বয়সী জায়াডা ফ্রানসেনকে যুক্তরাজ্যের আদালতে দাড়াতে হয়েছে। সেকানে বিচারক জায়াডা ফ্রানসেনকে অভিযুক্ত করে বলেন, ‘তার বক্তব্য সাধারণভাবে একটি নির্দিষ্ট ধর্মীয় গোষ্ঠীর উপর প্রচণ্ড আক্রমণের সামিল।’ একই সাথে তাকে উত্তর আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্ট শহরের ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে উপস্থিত হতে বলা হয়েছে এবং সেখানে তাকে হয়ত শাস্তির আওতায় আনা হবে।

জায়াডা ফ্রানসেন সহ ওই তিন নেতা কিছুদির আগে উত্তর আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্টে আয়োজিত ‘নদার্ন আয়ারল্যান্ড এগেইনস্ট টেরোরিজম’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে ইসলামের বিরুদ্ধে বিষেদাগার ছড়িয়েছেন বলে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগে আনা হয়েছে। তাদের সকলকে ইসলামের বিরুদ্ধে হুমকি, উপহাস মূলক বক্তব্য দেয়ার মাধ্যমে ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

আদালতে অভিযুক্তদের পক্ষে নিয়োজিত আইনজীবী যুক্তি দিয়ে বলেন, অভিযুক্তদের বক্তব্য যতই আক্রমণাত্মক হোক না কেন তারা তাদের মত প্রকাশের স্বাধীনতার চর্চা করেছিলেন মাত্র।

জায়াডা ফ্রানসেন তার ইসলাম বিরোধী বক্তব্যে বলেছিলেন, ‘ইসলামের মধ্যে কোনো মধ্যপন্থা নেই। আমাদের রক্ত নিয়ে খেলা করতে মুসলিমরা এখানে এসেছে।’ তিনি আরো বলেছিলেন, ‘আজ এখানে আপনাদের মত যেসকল সুন্দর মানুষজন উপস্থিত হয়েছেন ইসলাম তাদেরকে হত্যা করার নির্দেশ দিয়েছে।’ তার কথা শুনে উপস্থিত জনতা চিৎকার দিয়ে বলেছিল ‘আমাদের সকলের সাধারণ শত্রু কে রুখে দাঁড়ানোর এখনই সময়।’

আদালতের বিচারক এ সম্পর্কে মন্তব্য করে বলেন, ‘এ সমস্ত শব্দ ইসলামের বিরুদ্ধে ঘৃণা এবং ভীতি ছড়ানোর জন্য যথেষ্ট।’

জায়াডা ফ্রানসেন দাবী করেন, ‘ইসলামের ফলে যুক্তরাজ্য একটি গৃহ যুদ্ধের দিকে ধাবিত হচ্ছে’ এবং তিনি একে রুখে দেয়ার জন্য আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় হুমকির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর এখনই সময়।’

জায়াডা ফ্রানসেনের এসব বক্তব্য নিয়ে আদালত মন্তব্য করেন, ‘তার এসব বক্তব্য প্রকৃতিগত ভাবেই ভীতিকর এবং এসব শব্দ দ্বারা সে আসলেই অপরাধ করেছে বলে প্রমাণিত হচ্ছে।’

এদিকে পল গোল্ডিং লন্ডনের একটি মসজিদের দিকে ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, মসজিদটি যুক্তরাজ্যের সমাজে ইসলামী-করণ করছে। তিনি তার বক্তব্যে দাবী বলেন, ‘আমরা শুধুমাত্র একটি ধর্ম নিয়েই সমস্যার মধ্যে আছি আর তা হল ইসলাম।’

অন্যদিকে পল রিমের লিভারপুল শহরে দেয়া এক বক্তৃতায় বলেন, মুসলিমরা যুক্তরাজ্যকে তাদের কলোনিতে রূপান্তরিত করছে। ৫৬ বছর বয়সী এই নেতা আরো বলেন, ইসলামের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। তবে তিনি আদালতে দাবী করেন, তার এসব বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি মূলত ভালোবাসা এবং বন্ধুত্বের আহ্বান জানিয়েছিলেন। সূত্র: বিবিসি ডট কম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাজ্যে

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ