Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

লাইভ ফ্রম ঢাকা সিনেমাহলে প্রদর্শনের দাবিতে মানববন্ধন

বিনোদন ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ১১ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ নির্মিত ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’ গত ২৯ মার্চ স্টার সিনেপ্লেক্সের মাত্র একটি হলে মুক্তি পায়। চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশের কাহিনীচিত্রের যে গড় ধরণ তারচেয়ে ভিন্নতর একটি চলচ্চিত্র হিসেবে সকল দর্শকের দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষম হয় বলে নির্মাতা মনে করেন। ঢাকার চলচ্চিত্রপ্রেমী দর্শক, তরুণ চলচ্চিত্রকর্মীদের মাঝে ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’ নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। ধীরে ধীরে চলচ্চিত্রটটির দর্শক বৃদ্ধি পাচ্ছিল। এমন অবস্থায় গত ৫ এপ্রিল স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ সিনেমাটি তাদের হল থেকে নামিয়ে দেয়। চলচ্চিত্রটি সিনেমাহল থেকে নামিয়ে দেয়ার ঘটনায় চলচ্চিত্রকর্মীরা ব্যথিত হয়েছেন। তাই ‘লাইভ ফ্রম ঢাকা’ চলচ্চিত্রটি সিনেমাহল থেকে নামিয়ে দেয়ার প্রতিবাদে ও পুনরায় চলচ্চিত্রটি সিনেমাহলে প্রদর্শনের দাবিতে গতকাল বিকালে বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্সের সামনে মানববন্ধন কর্মস‚চির আয়োজন করে ‘নতুন চলচ্চিত্র নতুন নির্মাতা চলচ্চিত্র উৎসব’ আয়োজকগণ। মানববন্ধন কর্মসূচি নিয়ে বলতে গিয়ে ‘নতুন চলচ্চিত্র নতুন নির্মাতা চলচ্চিত্র উৎসব’ এর উৎসব পরিচালক চলচ্চিত্র নির্মাতা ও লেখক বেলায়াত হোসেন মামুন বলেন, ‘বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের পুরোনো কাঠামো বদলের সময় এসেছে। এখন আমাদের গড়ে তুলতে হবে এমন নতুন কাঠামো, যাতে বাংলাদেশের ইন্ডাস্ট্রি চলচ্চিত্রের ফর্মুলার বাইরে সৃষ্টিশীল-নিরীক্ষাধর্মী চলচ্চিত্রও সিনেমাহলের স্বাভাবিক পেশাদার কাঠামোতে পরিণত হতে পারে। আমরা বিশ্বাস করি, চলচ্চিত্রের পেশাদার কাঠামো কেবলমাত্র সিনেমাহলের মাধ্যমেই গড়ে উঠতে পারে। অন্যথায় দেশের হাজার হাজার তরুণ চলচ্চিত্রকার, চলচ্চিত্রকর্মী চলচ্চিত্রকে পেশা ও প্যাশনের মিশ্রনে একটি সৃজনশীল শৈল্পিক ক্যারিয়ার ভাবতে পারবেন না। যতদিন বাংলাদেশে চলচ্চিত্রকে ক্যারিয়ার হিসেবে গ্রহণ করার নূন্যতম নিরাপত্তা থাকবে না, চলচ্চিত্র হয়ে থাকবে ঝুঁকিপ‚র্ণ পেশার পথ, ততদিন আমরা বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সত্যিকারের বিকাশ আশা করতে পারি না। তাই ভালো চলচ্চিত্রের জন্য সচেতনভাবে আমাদের তৎপর থাকতে হবে। সিনেমাহল মালিক ও চলচ্চিত্রকর্মী বা নির্মাতার সত্যিকারের ভারসাম্যমূলক পেশাদার সম্পর্কই পারে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে আগামীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার উপযোগী করে গড়ে তুলতে’। উল্লেখ্য, ‘নতুন চলচ্চিত্র নতুন নির্মাতা চলচ্চিত্র উৎসব’ ২০১৫ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত নিয়মিত আয়োজন করা হয়েছে। এই উৎসবে বাংলাদেশের ৪৫০ জন তরুণ চলচ্চিত্রকারের বাছাইকৃত চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়েছে। চলচ্চিত্র উৎসবটি শুরু করেছিল ম্যুভিয়ানা ফিল্ম সোসাইটি। পরে উৎসবটি বাংলাদেশের নবীন ও তরুণ চলচ্চিত্রকারদের নিজস্ব স্বাধীন প্ল্যাটফর্মে পরিণত হয়



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিনেমা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ