Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৭ রমজান ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

হুমকির মুখে বেড়িবাঁধ কৃষিজমি

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১২ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:৫২ এএম

সীতাকুণ্ড ইউনিয়নের বাড়বকুণ্ডে সাগর উপক‚লের বেড়িবাঁধ সংলগ্ন এলাকা ও কৃষিজমি থেকে রাতভর মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে একটি চক্র।
প্রতিরাতে এই চক্রটি অর্ধশতাধিক গাড়ি করে দফায় দফায় মাটি সংগ্রহ করে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। কিছুদিন ধরে এ এলাকায় মাটি কাটার বিষয়টি উৎসবে পরিনত হয়েছে। স্থানীয় ও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের নডালিয়া গ্রামের পশ্চিমে সাগর উপক‚লের ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ¡াস থেকে রক্ষা পেতে সরকার ১৯৯৬ সালে বেড়িবাঁধ নির্মাণ করেন। আর বেড়িবাঁধের পাশে আছে সারি সারি উপক‚লিয় সবুজ বেষ্টনী।
গত কিছুদিন ধরে বাড়বকুণ্ডের নডালিয়া মৌজার বেড়িবাঁধের বিশাল এলাকা জুড়ে মাটি কেটে অর্ধ শতাধিক ড্রাম ট্রাকে ভর্তি করে তা বিক্রি করছে বিভিন্ন স্থানে। প্রতিদিন রাত ১০ থেকে ১১টার পর দুইটি স্কেবেটার দিয়ে মাটি কাটছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। প্রতি ড্রাম ট্রাক মাটি বিক্রি করছে দেড় হাজার টাকা থেকে দুই হাজার টাকা পর্যন্ত। তবে অবৈধ ভাবে মাটি উত্তোলন করায় হুমকির মুখে পড়ছে জীবনরক্ষা বেড়িবাঁধ। সামনে বর্ষার মৌসুমে জোয়ারের পানিতে বেড়িবাঁধটি ভেঙে কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়ে তলিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা।
বাড়বকুণ্ড নডালিয়া সাগর উপক‚লিয় গিয়ে দেখা গেছে, প্রায় ১২ থেকে ১৫ ফুট গভীর করে বিশাল একটি জায়গা থেকে মাটি কাটা হচ্ছে। অথচ কৃষি জমিতে গত আউশ ও আমন মৌসুমে ধান রোপন করছিল কৃষি পরিবার। বর্তমানে এসব জমি থেকে স্কেবেটার দিয়ে মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে এ চক্রটি। এদিকে স্থানীয় বাসিন্দা মুলকুত ও ইকবাল হোসেনসহ অনেকে বলেন, রাত ১১টার পর থেকেই মুলত মাটি কাটা শুরু হয়। এভাবে প্রতিদিন কয়েকশ’ গাড়িভর্তি মাটি বিক্রি করছে চক্রটি। মাটি কাটার কারণে বেড়িবাঁধ ভেঙে গিয়ে লোকালয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হতে পাড়ে।
সীতাকুণ্ড উপক‚লীয় রেঞ্জ কর্মকর্তা কামাল উদ্দিন বলেন, স্থানীয় বিট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন বন বিভাগের জায়গা থেকে মাটি কাটা হচ্ছে না। জায়গাটি পরিমাপ করলে বোঝা যাবে আসলে জায়গাটি উপক‚লিয় বনের, নাকি পানি উন্নয়ন বোর্ডের। পানি উন্নয়ন বোর্ড চট্টগ্রাম নির্বাহী প্রকৌশলী জুলফিকার তারেক বলেন, মাটি কাটার বিষয়টি জানা নেই। বিষয়টি খবর নিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বাড়বকুণ্ড ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছাদাকাত উল্লাহ মিয়াজী সাংবাদিকদের বলেন, ব্যক্তিগত জায়গা থেকেই মাটি কাটছে তারা। আর ব্যক্তিগত জায়গা থেকে মাটি কাটলে আমাদের কিছুই করার থাকেনা।
এবিষয়ে সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিল্টন রায় সাংবাদিকদের বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ড অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ