Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২০ মে ২০১৯, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৪ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

নারী নিযার্তনকে না বলুন -এডভোকেট নাজমুল হাসান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ এপ্রিল, ২০১৯, ৫:২৪ পিএম

সমাজে নারী নির্যাতনের চিত্র নতুন নয়। শহর,গ্রাম, নিম্নবিত্ত, উচ্চবিত্ত,স্বল্প শিক্ষিত ও উচ্চ শিক্ষিত সব স্তরের ঘটছে এ ধরনের নির্যাতনের ঘটনা।
নির্যাতন হচ্ছে কখনো শারীরিক, কখনো মানসিক, কখনো আর্থিক আবার কখনো যৌন হয়রানির শিকার।
সম্প্রতি বাংলাদেশে প্রথমবারের মত সরকারি এক জরিপে বলা হচ্ছে দেশের বিবাহিত মেয়েদের ৮৭ শতাংশ নির্যাতনের শিকার হচ্ছে নিজের ঘরে স্বামীর দ্বারা।
বাংলাদেশ পরিসংখ্যা ব্যুরোর করা এই জরিপে দেখা যাচ্ছে ৮১ দশমিক ৬ শতাংশ নারী স্বামীগৃহে মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন।
আর শারীরিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন ৬৪ দশমিক ৬ শতাংশ।

কেন নির্যাতনের শিকার হচ্ছে মেয়েরা?

বাড়ীতে মেয়েদের এই নির্যাতনের শিকার হওয়ার কারণ কি?

বিয়ের পর পর মেয়েরা স্বামীর বাড়িতে এসেই অন্যান্য সদস্যদের ঠিক আপন করে নিতে পারেন না,যার জন্য প্রয়োজন সময়ের, কিন্তু স্বামীদের কাছে এটাই বড় বিরক্তির কারণ হয়ে দাড়ায়।
আবার অনেকেই মেয়েদের চাকরি করতে চাওয়াটা পছন্দ করে না।
আবার সংসারের প্রথম দিকে দুজনের মতের অমিল হওয়া এবং মেয়েদের পরিস্থিতি বুঝে কাজ করতে না পারাটাও পুরুষের অপছন্দের কারণ বলে উল্লেখ করেন এ পরিসংখ্যানে।

প্রতিকার !!!

সামাজিক সচেতনতা ও নারী নির্যাতনের অভিযোগ কারও বিরুদ্ধে প্রমাণিত হলে অপরাধীদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করলে নারী নির্যাতন কিছুটা হলেও প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে বলে আমার বিশ্বাস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন