Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ০৬ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

টাঙ্গাইলে ধর্ষণের ঘটনায় ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ এপ্রিল, ২০১৯, ৭:১১ পিএম

টাঙ্গাইলে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় ৮ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
শনিবার দুপুরে ধর্ষিতার স্বামী বাদী হয়ে টাঙ্গাইল মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় ৬ জন আসামী গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে শহরের কোদালিয়া এলাকার আলম মিয়ার ইউসুফ রানা (২৫), একই এলাকার রশিদের ছেলে মো. রবিন (২৫), দেওলা এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে জাহিদুল ইসলাম (২১), নাগপুর উপজেলার ধুবরিয়া এলাকার মৃত মজনু মিয়ার মো. মফিজ (২১), কোদালিয়া এলাকার রবিকুল ইসলামের ছেলে তানভীরুল ইসলাম তাসিন (২২), দেওলা এলাকার আল বেরুনীর ছেলে ইব্রাহিম ইবনে আলবেরুনী (২০)। এঘটনায় অপর দুই পলাতক আসামীরা হলো দেওলা এলাকার হাসান সিকদার (২২) ও মো. উজ্জল মিয়া (২৫)।

এ ব্যাপারে শনিবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, শহরের তিনটি স্থানে ওই গৃহবধূকে গনধর্ষণ করা হয়। খবর পেয়ে পুলিস তাৎক্ষণিকভাবে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে। অপর আসামীদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ধর্ষিতা গৃহবধূ ও তার স্বামী মির্জাপুরের গোড়াই খান গার্মেন্টস এ কাজ করেন। শুক্রবার বিকেলে কাজ শেষে শ্বশুরবাড়ি কালিহাতী উপজেলার আউলটিয়ায় বেড়াতে যায়। শ্বশুরবাড়ী থেকে মির্জাপুরে যাওয়ার উদ্দেশে সিএনজি যোগে কালিহাতীর এলেঙ্গা ও

বাসযোগে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে শহরের নতুন বাসস্ট্যান্ডের নাভানা সিএনজি পাম্পের সামনে বাসের জন্য অপেক্ষা করতে থাকে। এমতাবস্থায় আসামীরা কৌশলে গৃহবধূ ও তার স্বামীকে ওই গৃহবধূর স্বামীকে একটু দূরে নিয়ে চর থাপ্পড় মারতে থাকে এবং একটি মোবাইল ফোন ও ১ হাজার ২ শ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে বিষয়টি স্ত্রী দেখতে পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে তাকে জোর পূর্বক সিএনজি পাম্পের পিছনে নিয়ে যায়। পরে আসামী ওই গৃহবধূকে তিনটি স্থানে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। আসামী ইউসুফের নামে এর আগেও ৪ টি, রবিনের নামে ২ টি ও মফিজের নামে ৫টি মামলা রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মামলা


আরও
আরও পড়ুন