Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

গার্মেন্টস শ্রমিক নির্যাতন চলছে

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৭ এএম

শ্রমিক নেতারা অভিযোগ করেছেন, সারাদেশে গার্মেন্ট শ্রমিকদের ওপর নির্যাতন চলছে। গার্মেন্টসে গার্মেন্টসে শ্রমিক ছাঁটাই, জোর করে চাকুরিচ্যুতি, অবৈধ টার্মিনেশন চলছে। কার্যত দেশের সর্বোচ্চ রপ্তানি আয়কারি এ খাতে শ্রমবিরোধী পরিস্থিতি বিরাজ করছে। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ১২ টি শ্রমিক সংগঠনের জোট গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে তারা একথা বলেন। ‘গার্মেন্টস-এ অবৈধ ছাঁটাই, টার্মিনেশন, চাকুরিচ্যুতি, মামলা-হামলা, নির্যাতন-নীপিড়নের প্রতিবাদে এ বিক্ষোভ সমাবেশ হয়।
সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, কারখানাগুলো থেকে খবর আসছে হাজার হাজার শ্রমিকদের ছাঁটাই করা হচ্ছে। তাদের অভিযোগ জানানোর জায়গা নাই, অধিকার উত্থাপনের জন্য কার্যকর ইউনিয়নও নাই। এবিষয়ে তারা সরকার কিংবা দায়িত্বশীল কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে পরিত্রাণ পাচ্ছে না বরং চাকুরি হারাচ্ছে, মিথ্যা মামলার স্বীকার হচ্ছে। সমাবেশ থেকে নেতৃবৃন্দ এগুলোর প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, অবিলম্বে ছাঁটাই বন্ধ করুন, বিভিন্ন প্রকারের ভয়-ভীতি চাপ প্রয়োগ করে টার্মিনেশন-বহিষ্কার বন্ধ করুন, নির্যাতন-নিপীড়ন বন্ধ করুন এবং শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অবৈধ মামলা প্রত্যাহার করে শিল্পে শ্রমবান্ধব উৎপাদনমুখী পরিবেশ ফিরিয়ে আনুন।
নেতৃবৃন্দ বলেন, শ্রমবান্ধব, উৎপাদনশীল স্বাভাবিক কর্মপরিবেশ তৈরির দায়িত্ব যেখানে প্রধানত কারখানা মালিকের। সেখানে গার্মেন্টসের অব্যবস্থাপনা ওই মালিকদেরই সৃষ্টি, তাদের অতিমুনাফাই এজন্য দায়ী। কাজেই যদি আরো খারাপ পরিস্থিতি অরাজকতা শুরু হয়, তার দায়ও মালিকদের নিতে হবে। যা দেশবাসীসহ শ্রমিকদের কারোরই কাম্য নয়।
নেতারা বলেন, এইখানে শ্রম পরিদর্শকসহ শ্রম মন্ত্রণালয়ের জরুরি উদ্যোগ গ্রহণ প্রয়োজন। পরিস্থিতি পুরো তদারক করে দায়ি মালিকদের শাস্তি প্রদান করতে হবে। এমনকি সরকার থেকে প্রদত্ত বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বন্ধ করতে হবে। সমাবেশ থেকে আগামী ২০ এপ্রিলের মধ্যে শ্রমিক ছাঁটাই, অবৈধ টার্মিনেশন, চাকুরিচ্যতি, মামলা-হামলা বন্ধ করতে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করা না হলে সংবাদ সম্মেলন করে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে।
গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের বর্তমান সমন্বয়ক এবং সোয়েটার ও গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এস. এম. এ ফয়েজ-এর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য প্রদান করেন গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার, ও এস কে গার্মেন্টস এ্যান্ড টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ ইয়াসিন, গার্মেন্টস শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের উপদেষ্টা শামীম ইমাম, গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের কেন্দ্রীয় নেতা মমিনুর রহমান, গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতা রাজু, বাংলাদেশ গার্মেন্টস টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের সদস্য ফিরোজ আহমেদ, জাতীয় পোশাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেনের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীর মুজিব, গার্মেন্টস শ্রমিক আন্দোলনের আহ্বায়ক বিপ্লব ভট্টাচার্য্য, গার্মেন্টস শ্রমিক সভার সভাপতি শামসুজ্জোহা, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন সভাপতি অরবিন্দ ব্যাপারী বিন্দু প্রমুখ।
সমাবেশের শুরুতেই নুসরাত হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ জানানো হয় এবং অবিলম্বে হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ