Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

পাবনায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৭:৫০ পিএম

পাবনার আমিনপুর থানা এলাকায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে , সিএনজি চালিত অটে রিকাশা চালক ও তার সহযোগির বিরুদ্ধে। ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী পাবনার বেড়া উপজেলাধীন আমিনপুর থানা এলাকার আলহাজ্ব ইমান আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী ।
নববর্ষের দিন রবিবার দুপুরে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নির্যাতিতা ছাত্রীর মা বাদী হয়ে দুই জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। সোমবার এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযুক্তদের কেউ আটক হয়নি।
অভিযুক্তরা হলো- আমিনপুর থানার বৃ-নান্দিয়ারা গ্রামের আবুল শেখ ওরফে আবু সাইদের পুত্র জহুরুল ইসলাম (২৬) ও একই গ্রামের আবুল সাপুরিয়ার পুত্র আলামিন (২৪)।
নির্যাতিত স্কুলছাত্রী জানায়, আমিনপুর থানার দিঘলকান্দি গ্রামে বোনের বাড়ি থেকে রোববার দুপুরে বাঘলপুর নিজ বাড়িতে ফেরার উদ্দেশ্যে অটোভ্যানে রওনা হয় সে। পথিমধ্যে অটোভ্যান নষ্ট হয়ে গেলে তাকে একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশায় তুলে দেয় ভ্যান চালক। কিছু ধূর আসার পর চালক আলামিন ও তার বন্ধু জহুরুল অটোরিকশাটি একটি নির্জন বাগানের মধ্যে নিয়ে তাকে ¯ পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পড়ে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বাড়ি পৌঁছে দেয়। এ ঘটনায় ঐ ছাত্রীর মা বাদী হয়ে দুইজনকে আসামী করে রোববার রাতে আমিনপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
সোমবার দুপুরে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে স্কুলছাত্রীর ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। কর্তব্যরত গাইনী চিকিৎসক ডা. সাবেরা গুলরুখ সাংবাদিকদের জানান, প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষায় স্কুল ছাত্রীকে নির্যাতনের প্রমাণ মিলেছে।
নির্যাতিতা স্কুলছাত্রীর মা জানান, রোববার বিকেলে আমার মেয়েকে অসুস্থ্য অবস্থায় কয়েকজন লোক বাড়ি পৌঁছে দেয়। মেয়ের কাছ থেকে ঘটনার শুনে আমিনপুর থানায় মামলা দায়ের করেছি। দিনে দুপরে যারা আমার মেয়েকে এভাবে নির্মম নির্যাতন করেছে, তাদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবী করেন তিনি।
আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, নির্যাতিতা শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ঘটনা বিস্তারিত শুনেেিছন। শিক্ষার্থীর পরিবার রোববার রাতে আলামিন ও জহুরুলকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্তদের গ্রেফতারে একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে। খুব শিগগিরিই তারা ধরা পড়বে।



 

Show all comments
  • আবদুল্লাহ ১৫ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:৪৪ পিএম says : 0
    ধর্ষণকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেয়া প্রয়োজন । অন্যথায় এনরনের ঘটনা বেড়ে যাবে ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ

২৩ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ