Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ : মুসলিম যোদ্ধাদের স্বরণে ব্রিটেনে মেমোরিয়াল হচ্ছে

প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : প্রথম বিশ্বযুদ্ধে ব্রিটেনের পক্ষে লড়াই করেছিলেন চার লাখেরও বেশি মুসলিম যোদ্ধা। তাদের সিংহভাগ ছিলেন তৎকালীন ভারতবর্ষের অধিবাসী। ব্রিটেনজুড়ে এবং এর বাইরেও বহুস্থানে প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে প্রাণ হারানো যোদ্ধাদের স্বরণে মেমোরিয়াল থাকলেও মুসলিম সৈন্যদের স্মরণে এমন কিছু নেই। এই ঘাটতি পূরণ করতে উদ্যোগ নিয়েছেন যুক্তরাজ্যের এক তরুণ চিকিৎসক ডাক্তার ইরফান মালিক। তিনি চার লাখেরও বেশি মুসলিম যোদ্ধার জন্য একটি বিশেষ মেমোরিয়ালের ডিজাইন করেছেন।
ডাক্তার ইরফান বলেন, ব্রিটেনের পক্ষে লড়ে শহীদ হয়েছেন ভারতবর্ষের চার লাখেরও বেশি মুসলিম। তাদের কথা আপনি পাঠ্যবইয়ে পাবেন না। কোনো মুভিতেও দেখবেন মুসলিম যোদ্ধাদেরকে। এই বিশাল সংখ্যক যোদ্ধাকে তাদের প্রাপ্য সম্মান দেয়া হয়নি।
নটিংহাম এলাকার শেরউডের বাসিন্দা ডাক্তার ইরফান জানান, এমন একটি মেমোরিয়াল নির্মাণের চিন্তা তার মাথায় আসে তার পারিবারিক ইতিহাস ঘাটতে গিয়ে। পাকিস্তানী বংশোদ্ভুত ইরফানের দাদার বাবা এবং নানার বাবা দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশের বাসিন্দা ছিলেন। তারা উভয়েই ব্রিটেনের হয়ে প্রথম বিশ্বযুদ্ধে লড়াই করেছেন। তিনি আরো জানতে পারেন, তাদের গ্রাম থেকে সাড়ে চারশো থেকে সাড়ে আটশোজন পুরুষ ব্রিটেনের হয়ে যুদ্ধ করতে গিয়েছিলেন। যাদের বেশিরভাগই গিয়েছেন স্বেচ্ছায়। যুদ্ধের পর ওই গ্রামে বহু বছর ধরে কোনো পুরুষ মানুষ ছিলেন না।
ইরফান এরপর থেকে ভারত উপমহাদেশের এমন মুসলিম যোদ্ধাদের জন্য একটি মেমোরিয়াল নির্মাণের উদ্যোগ নেন। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি ওয়ার্ল্ড ওয়ারস মুসলিম মেমোরিয়াল ট্রাস্ট নামে একটি ট্রাস্ট গঠন করেন। এর অধীনে ২৫ হাজার পাউন্ড (২৫ লাখ টাকার বেশি) সংগ্রহ করে মেমোরিয়ালটি নির্মাণ করা হবে।
তার এই উদ্যোগে ইতোমধ্যেই সাড়া পেয়েছেন বলে জানিয়েছে ডাক্তার ইরফান। তিনি বলেন, আমরা এটিকে ইসলামি ঐতিহ্যের সাথে মিলিয়ে নির্মাণ করতে চাই। মুসলিমরা প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ব্রিটেনের হয়ে লড়েছে। এবং আমরা এই যুদ্ধের অংশ। ইরফান মনে করেন, এই উদ্যোগের ফলে তরুণ মুসলিমরা তাদের পূর্বপুরুষের অবদান সম্পর্কে জানতে পারবে এবং এটি এখানে ঐক্যের বন্ধন হিসেবে কাজ করবে। সূত্র: দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।