Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ আগস্ট ২০২০, ২২ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

যারা কাদিয়ানিদের অমুসলমান মনে করে না, তারাও অমুসলমান -আল্লামা আহমদ শফী

‘মুসলমানদের কবরস্তানে কাদিয়ানিদের দাফন করা যাবে না’

পঞ্চগড় জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ এপ্রিল, ২০১৯, ৯:৫৩ পিএম

হেফাজতে ইসলামীর আমীর আল্লামা আহমদ শফী বলেছেন, কাদিয়ানিরা আমাদের নবীকে (সা.) শেষ নবী মানেন না। এজন্য তারা কাফের। যারা এদের কাফের বলবে না, তারাও কাফের। তাদের যারা অমুসলমান মনে করে না, তারাও অমুসলমান। এদের মুসলমানদের কবরস্তানে দাফন করা যাবে না। মঙ্গলবার দুপুরে পঞ্চগড় বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম স্টোডিয়ামে সম্মিলিত খতমে নবুয়ত সংরক্ষণ পরিষদ পঞ্চগড় এর আয়াজনে খতমে নবুয়ত মহাসম্মোলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার সাদাত সম্রাটের সভাপতিত্বে সম্মেলনে ইটারন্যশনাল খতমে নুবুয়্যত বাংলাদেশ এর আমির মাহমুদুল হাসান মনতাজী, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব ড. আসম শায়াইব আহমদ, বাংলাদেশ খতমে নবুয়ত সংরক্ষন কমিটির সভাপতি আব্দুল হামিদ, আমরা ঢাকাবাসী সংগঠনের সভাপতি শামসুল হক, খতমে নবুয়ত মার্কাসের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মুফতি শুয়াইব ইব্রাহীম, খতমে নবুয়ত আন্দোলনের বাংলাদেশ আমীর বাহাউদ্দিন জাকারিয়া, ঢাকার দারুন্নাজাত কামিল মাদ্রাসার মোহাদ্দেস উসমান গণি সালহী প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। এতে জেলার এবং জেলার বাইর থেকে কওমী মাদ্রাসার শিক্ষার্থী-শিক্ষকসহ কয়েক হাজার মুসল্লি অংশ নেয়। এর আগে সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে হলিকপ্টার যোগে পঞ্চগড়ে পৌঁছান আল্লামা আহমদ শফী।
আল্লামা আহমদ শফী বলেন, ‘যারা কাফের হয়ে গেছে, তাদের টাকা-পয়সা দিলে, দোযখের আজাবের কথা বললে তারা ফিরে আসবে। এ ব্যাপারে যুবকদের চেষ্টা করতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘কাদিয়ানিদের মেয়েকে বিয়ে করা যাবে না, এদেরকে মেয়ে দেওয়া যাবে না।’ সৌদি আরব, পাকিস্তানসহ বিভিন দেশে কাদিয়ানিদের সরকারিভাবে অমুসলমান ঘোষনা করা হয়েছে। এদের যেন হাসিনা সরকার অমুসলমান ঘোষনা করে, সে চেষ্টা করা হবে। দেশের হাইকোর্টের একটি রায়ে এদের কাফের সাব্যস্ত করা হয়েছে। অবিলম্বে সেই রায় কার্যকর করতে হবে। মুসলিম পরিচয়ে কাদিয়ানীরা এই দেশে বসবাস করতে পারবে না। এদেশে কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলমান ঘোষণা করে সংখ্যালঘু হিসেবে থাকতে দেওয়া হোক।
তিনি আরও বলেন, ‘কাদিয়ানীরা ছাড়াও কোরআন হাদিস এর ভূল ব্যাখা করে অনেকে ইসলামকে ভূলভাবে উপস্থাপন করছে। এদের মধ্যে মওদুদি মতবাদ, লা মাযহাবী ও আহলে হাদিসের বিশ্বাসী, তাবলীগ জামাতের অনুসারীরা ভ্রান্ত মতবাদ প্রচার করছে। পাশাপাশি খ্রিষ্ঠান মিশনারী আমাদের সাথে প্রতারণা করছে। তবে হেফাজতে ইসলামকে একটি অরাজনৈতিক সংগঠন উল্লেখ করে তিনি সকলকে এই সংগঠন আকড়ে ধরার আহবান জানান। এর আগে আল্লামা আহমদ শফীর পক্ষে তার ছেলে আনাস মাদানী একটি লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।।



 

Show all comments
  • Ivan Hussain ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৯:১৬ এএম says : 0
    কাদিয়ানীরা কাফের তার ঘোষণা শীঘ্রই আসা উচিত। কাদিয়ানীরা তাদের বিশ্বাস, আক্বীদার দরূণ কাফের হয়ে গিয়েছে। সুতরাং কাদিয়ানীদেরকে মুসলিম বানিয়ে যারা এখনো রাজনীতি করছে তাঁরা হচ্ছে ইসলাম এবং মুসলিমদের সবচেয়ে বড় শত্রু।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আল্লামা আহমদ শফী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ