Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২১ মে ২০১৯, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৫ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

অডিট প্রত্যাহার করতে বিটিআরসিকে গ্রামীণফোনের অনুরোধ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা (বিটিআরসি) পরিচালিত অডিটকে ভিত্তিহীন ও বেআইনি বলেছে মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন। কমিশনের সেই অডিট প্রত্যাহার করতে অনুরোধও করেছে প্রতিষ্ঠানটি। গতকাল (মঙ্গলবার) বিটিআরসিকে দেয়া এক চিঠিতে গ্রামীণফোন অডিটকে যুক্তিহীন অডিট উল্লেখ করে একটি যুক্তিপূর্ণ সমাধানের আহŸান জানায়। বিটিআরসির ওই অডিটে গ্রামীণফোনের কাছে ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা দাবি করে কমিশন।
গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে বলা হয়, বিটিআরসি ২ এপ্রিল একটি দাবিনামার মাধ্যমে গ্রামীণফোনের কাছে বিটিআরসি কে ৮ হাজার ৪৯৪ কোটি ১ লাখ টাকা এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কে ৪ হাজার ৮৫ কোটি ৯৪ লাখ টাকা পরবর্তী ১০ কর্মদিবসে পরিশোধ করার নির্দেশ দেয়। বিটিআরসির নিয়োগ করা জেভিসিএ অব তােহা খান জামান এ্যান্ড কো. নামের একটি অডিট ফার্ম গ্রামীণফোনের ১৯৯৭ সালের যাত্রা থেকে শুরু করে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সময়ে ইনফরমেশান এ্যান্ড সিস্টেম অডিট পরিচালনা করে এই টাকা দাবি করে। এই অডিটে বিটিআরসির দাবি করা ৮ হাজার ৪৯৪ কোটি ১ লাখ কোটি টাকার মধ্যে প্রায় ৭৩ শতাংশ বা ৬ হাজার ১৯৪ কোটি ৩ লাখ টাকাই হলো সুদ যা ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত ধরা হয়েছে।
অপারেটরটি জানায়, এর আগে বিটিআরসি আর একটি ইনফরমেশান এ্যান্ড সিস্টেম অডিটের মাধ্যমে ১৯৯৭ থেকে ২০১১ সালের সময়কালে গ্রামীণফোনের কাছে থেকে ৩ হাজার ৩৪ কোটি টাকা পাবে বলে দাবি করে। সুপ্রিম কোর্টের এ্যাপিলেট ডিভিশন সেই অডিটের অডিটর নিয়োগ কে অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেয়। বিটিআরসি ১৯৯৭-২০১১ সময়কালের পূর্ববর্তী অডিটের দাবি নিয়ে মাননীয় আদালতে একদিকে তাদের আইনগত লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে অন্যদিকে ১৯৯৭ থেকে ২০১৪ সালের অডিটে এখন ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা দাবি করছে। ১৯৯৭ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত সময় কালের জন্য বিটিআরসি দুটি দাবি করছে।
গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন, নিয়ন্ত্রণ সংস্থার সাথে অনেকবার আলোচনা এবং অডিটরকে পর্যাপ্ত সহযোগিতা করার পরেও আমাদের যুক্তিগুলো অডিট প্রতিবেদনে প্রতিফলিত না হওয়া খুবই দুঃখজনক। অডিট চলাকালীন পুরো সময়ে আমরা বারংবার অডিট প্রক্রিয়ার ত্রæটিগুলো তুলে ধরেছি। কিন্তু আমাদের মতামতকে দাবিনামায় সর্ম্পূণভাবে উপেক্ষা করা হয়েছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রামীণফোন


আরও
আরও পড়ুন