Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২০ মে ২০১৯, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৪ রমজান ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র ইকরামুল হক টিটু

মো. শামসুল আলম খান | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৯:৫৪ পিএম | আপডেট : ১২:১১ এএম, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯

জল্পনা-কল্পনা ছিলো। ছিলো অধীর অপেক্ষা। অবশেষে অবসান হলো সেই প্রতীক্ষার। আর এই প্রতীক্ষার অবসান ঘটাতে গিয়ে তিনি রচনা করলেন এক ইতিহাস। ময়মনসিংহ পৌরসভার শেষ মেয়র থেকে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের (এমএমসি) প্রথম প্রশাসক অতপর প্রথম মেয়র নির্বাচিত হলেন আওয়ামী লীগের ইকরামুল হক টিটু।
তিনি ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতিও। বুধবার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো: আলীমুজ্জামান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমএমসি’র প্রথম মেয়র হিসেবে ইকরামুল হক টিটু’র নাম ঘোষণা করেন। পরে তিনি নিশ্চিত করেছেন এই তথ্য।
ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের এ রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, আগামী ৫ মে ভোটগ্রহণের পর গেজেট আকারে বিষয়টি প্রকাশ করা হবে।
এদিকে, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার এ ঘোষণার মধ্যে দিয়ে উচ্ছ্বাস-আনন্দের জোয়ার তৈরি হয়েছে ময়মনসিংহ নগরীতে। ফুলেল ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন জনবান্ধব নগর পিতা ইকরামুল হক টিটু।
সূত্র জানায়, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন ৫ জন। এর মধ্যে আবু মুসা সরকার, শহীদুল ইসলাম স্বপন মন্ডল ও বিশ্বজিৎ ভাদুরী ভোটারের স্বাক্ষর জালের ঘটনায় ফেঁসে গিয়ে প্রার্থীতা হারান। পরে বিভাগীয় কমিশনারের কাছে তাদের আপিলও খারিজ হয়ে যায়।
ফলে মেয়র পদে ইকরামুল হক টিটু’র মূল প্রতিদ্বন্দ্বী দাঁড়ান ময়মনসিংহ মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি জাহাঙ্গীর আহমেদ। কিন্তু মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বিকেলে নগরীর স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।
বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে আবেদন করে নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নেন। এর কয়েক ঘন্টার মাথায় আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও এই নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আলীমুজ্জামান ইকরামুল হক টিটুকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র হিসেবে নির্বাচিত ঘোষণা করেন।
প্রসঙ্গত, দেশের অষ্টম বিভাগ হিসেবে ময়মনসিংহের যাত্রা শুরুর পর ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন গঠিত হয়। এরপর গেজেট প্রকাশিত হওয়ার দুই দিনের মধ্যে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ পান ইকরামুল হক টিটু। এই নির্বাচনে দলীয় একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠে থাকলেও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা ইকরামুল হক টিটুকেই দলীয় মনোনয়ন দেন।
মূলত অভিজ্ঞতা, তারুণ্য, জনবান্ধব ভাবমূর্তি, দক্ষ সংগঠকসহ নানা কারণে সব প্রতিদ্বন্দ্বীকে পেছনে ফেলে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন পান ইকরামুল হক টিটু।
বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর ইকরামুল হক টিটু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছিলেন এবং আমি নির্বাচিত হয়েছি। আমি অতীতের মতোই প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবো।
আগামী ৫ মে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের প্রথম ভোটের দিন নির্ধারণ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগের ২১ টি ওয়ার্ডের পাশাপাশি নতুন ১২ টি ওয়ার্ড সর্বমোট ৩৩ টি ওয়ার্ডে এই নির্বাচনের মোট ভোটার ২ লাখ ৯৬ হাজার ৩৮ জন। ১২৭ টি ভোটকেন্দ্রের সব ক’টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোট অনুষ্ঠিত হবে।
এই ভোটের জন্য সব মিলিয়ে প্রায় ১১ কোটি টাকা ব্যয় ধরেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচন পরিচালনা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও ইভিএম এই তিন খাতে মূলত ব্যয় মেটানো হবে।
মেয়র পদে ভোটের প্রয়োজন না পড়লেও ৩৩ টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর পদে নির্বাচনের জন্য এই অর্থ ব্যয় হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ