Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা, লাশ ফেলে পালিয়েছে স্বামী, গ্রেফতার-২

নোয়াখালী ব্যুারো ও কোম্পানীঞ্জ উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ এপ্রিল, ২০১৯, ৫:৪৩ পিএম

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের বটতলা এলাকায় পারিবারিক কলহের জের ধরে এক গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন। নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ।

থানা ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা গেছে, দুই বছর পূর্বে চরফকিরা ইউনিয়নের ফখরুল ইসলাম সবুজের মেয়ে শারমিন আক্তার রিতু (২১)এর সাথে একই ইউনিয়নের আবুল কালাম কালুর ছেলে প্রবাসী মোশারেফ হোসেন বাহাদুর (৩০) সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে রিতুর দাম্পত্য জীবনে কলহ দেখা হয়। এরই মধ্যে স্বামী বিদেশ চলে যায়। এসময় রিতুর উপর শশুর, শাশুড়ি ও পরিবারের লোকজন রিতুর উপর শারিরিক নির্যাতন বৃদ্ধি করে। ২২ দিন পূর্বে স্বামী বাহাদুর বিদেশ থেকে বাড়িতে আসে। বাড়িতে আসার পর থেকে নির্যাতনের মাত্রা আরো রেড়ে যায়। একপর্যায়ে গৃহবধু রিতু তার বাপের বাড়িতে চলে যান। ১০ দিন আগে গৃহবধুর রিতুর পরিবার তাকে আবার স্বামীর বাড়িতে দিয়ে আসে। গতকাল (শুক্রবার) দুপুরে রিতুকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে কোম্পানীগঞ্জ স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসে স্বামী, শ্বশুর ও শ্বাশুড়ি। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। এর ফাঁকে স্বামী পালিয়ে যায়। রিতুর শ্বশুর আবুল কালাম কালু (৫৮) ও তার শ্বাশুড়ি আরাধনি (৪৮) জনতা আটক করে থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করে।

এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আসাদুজ্জামান জানান, জনতা মৃতের শ্বশুর শ্বাশুড়িকে ধরে আমাদের হাতে তুলে দিয়েছে এবং লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালীতে পাঠিয়েছি। তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে আমরা দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নিব।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পিটিয়ে হত্যা

১৯ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন