Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২১ মে ২০১৯, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৫ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

সিলেটের মুসলিম সমাজ পবিত্র শব-ই-বরাত পালনে প্রস্তুত

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ এপ্রিল, ২০১৯, ৮:৫৪ পিএম

প্রস্তুত সিলেট সহ দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমান। রবিবার দিবাগত রাতে তারা পালন করবেন ইসলামের অন্যতম মহিমান্বিত রাত পবিত্র শবই-বরাত। মাংস-শিরনীসহ নানা মুখরোচক খাবার তৈরিতে ব্যস্ততা এখন প্রায় সব পরিবারে। এই রাতে প্রায় সবাই নফল নামাজ, কোরআন তেলওয়াত ও মোনাজাত করেন। পরদিন অনেক মুসলিম নারী ও পরুষ রোজা রাখেন।রবিবার সূর্যাস্তের পরপরই শুরু হবে শব-ই-বরাতের আবহ। মসজিদগুলো ভরে যাবে মুসল্লিতে। ইমাম সাহেবগণ শুরু করবেন বিশেষ বয়ান। মুসল্লিরা নামাজ আদায় করবেন। এছাড়াও বাবা-মাসহ আত্মীয়দের কবর জিয়ারতও শব-ই-বরাতের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। হযরত শাহজালাল (র.)হযরত শাহপরান (র.) ও গাজী বোরহান উদ্দিন (র.) মাজারসহ ধোয়া-মোছার কাজ শেষ হয়েছে। আলোকসজ্জা করা হবে মসজিদ, মাজার, খানকাসহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে। পবিত্র শব-ই-বরাত মুসলমানদের কাছে লাইলাতুল বরাত নামেও পরিচিত। আরবি শব্দ লাইলা অর্থ রাত। ফার্সি শব্দ শব অর্থও রাত। আর বরাত অর্থ ভাগ্য। শাবান মাসের ১৪ তারিখের এ রাতকে নাজাতের রাত হিসেবে অবহিত করেন ইসলামী চিন্তাবিদরা। এ রাতে সৃষ্টিকর্তার কাছে পাপ থেকে মুক্তি কামনা করে সবাই বিশেষ মোনাজাত ও ইবাদতে মশগুল থাকেন। শব-ই-বরাত প্রসঙ্গে দেশ বরণ্যে ইসলামী চিন্তাবিদ অিধ্যক্ষ মাওলানা একেএম মনোওর আলী বলেন, বান্দার ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করার জন্য কিছু নির্দিষ্ট দিন ও সুযোগ আল্লাহ তায়ালা অশেষ মেহেরবানীতে প্রদান করেছেন। সে সুযোগ বান্দা কাজে লাগিয়ে বান্দা আল্লাহর নিকট প্রিয়জন হতে পারে। তিনি বলেন, ইবাদত বন্দেগিতে মানুষ যত ধ্যান মগ্নতায় নির্জনতা অনুসরন করবে ততই তার জন্য মঙ্গলময় হবে মহান মাবুদের ক্ষমায় সিক্ত হ্ওয়া।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন